মঙ্গলবার, মে ৩০, ২০১৭

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

করাচিতে ৯৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেললেন শোয়েব মালিক

মালিক

ঝড় যেন মালিকের ব্যাটকেই ভালোবাসে। করাচি স্টেডিয়ামে সকালে কঠিন কন্ডিশনে ছিলো শোয়েব মালিকের দল। আফ্রিদিদের বোলিং তাণ্ডবে একের পর এক উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে শোয়েব মালিকের দল।

সুই সাউদার্ন গ্যাস কর্পোরেশন প্রথম ১৭ ওভারে মাত্র ৩১ রান করেছিলো। দলের এমন বিপদের সময় ব্যাট হাতে মাঠে আসেন শোয়েব মালিক। এর পরে প্রায় পুরো সময় মাঠে ছিলেন মালিক।

হাবিব ব্যাংকের বিপক্ষে অন্যরা না পারলেও ঠিকই ঝড় তুলেছেন শোয়েব মালিক। দলের বিপদের দিনে ৯৩ রানের কার্যকর ইনিংস খেলেছেন তিনি। দলের ৪৮ ওভারের সময় ক্যাচ আউট হন তিনি।

গ্যাস কর্পোরেশনের দলীয় রান গিয়ে দাঁড়ায় ২৩২। মালিক তার ইনিংসে বাউন্ডারি মেরেছেন ৯টি। পাকিস্তানের ওয়ানডে কাপের ফাইনাল ম্যাচে লড়াই চলছে তুমুল। গ্যাস কর্পোরেশনের দেয়া ২৩৩ রানের টার্গেটের জবাবে এখন ব্যাট করছে হাবিব ব্যাংক।

এর আগে ১৬৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে হাবিব ব্যাংককে ফাইনালে নিয়ে আসেন আহমদ শেহজাদ। তিনি তো দলে রয়েছেনই। তার সাথে নতুন করে যোগ হয়েছেন শহীদ আফ্রিদি। পাকিস্তানে এই ম্যাচের দিকে পাখির চোখ সবার।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

পাকিস্তান বাংলাদেশ

মূল লড়াইয়ে ভালো করার প্রত্যয় টাইগারদের

নিশ্চিত জেতা ম্যাচ শেষ পর্যন্ত হেরে বসেছে বাংলাদেশ। পাকিস্তানের বিপক্ষেবিস্তারিত পড়ুন

মুস্তাফিজ

‘চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতেও সাফল্য এনে দেবেন মুস্তাফিজ’

গত দুই বছরের বেশি সময় ধরে ওয়ানডে ক্রিকেটে দারুণ সাফল্যবিস্তারিত পড়ুন

সাকিব

চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে বাংলাদেশের নতুন জার্সি

মাঝখানে আর মাত্র কয়েকদিন বাকি, এর পরই শুরু হচ্ছে চ্যাম্পিয়নসবিস্তারিত পড়ুন

  • পাকিস্তানে হাই পারফরম্যান্স দল পাঠাবে না বাংলাদেশ
  • আগামী বিপিএলে বিদেশি ক্রিকেটারের সংখ্যা বাড়তে পারে
  • চ্যাম্পিয়নস ট্রফির অভিযানে ইংল্যান্ড পৌঁছল টিম টাইগার
  • বিপিএলের ৫ম আসর শুরু ৪ নভেম্বর
  • ভিডিও কেলেঙ্কারিতে জয়াসুরিয়া!
  • অনন্য এক কীর্তি গড়লেন মাহমুদউল্লাহ
  • রুদ্বশ্বাস জয়ে র‌্যাংকিংয়ে ছয়ে উঠল মাশরাফি বাহিনী!
  • ১৩৬ রানের জুটি গড়ে বিদায় তামিম-সাব্বিরের
  • জোড়া হাফ সেঞ্চুরিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ
  • ছক্কা মেরে ইতিহাসের পাতায় তামিম!
  • প্রথম বলে ছক্কা; তৃতীয় বলেই অক্কা!
  • শেষ ম্যাচ জিততে বাংলাদেশের চাই ২৭১ রান