বুধবার, অক্টোবর ১৭, ২০১৮

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

‘গ্রেনেড হামলার রায় নিয়ে নৈরাজ্য সহ্য করা হবে না’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, বলেছেন, একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে সামনে রেখে যে কোন ধরনের নৈরাজ্য মোকাবেলা করার জন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের আওয়ামী লীগের সমাবেশের ওপর গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে কেন্দ্র করে কোন ধরনের নৈরাজ্য সহ্য করা হবে না।

সোমবার (৮ অক্টোবর) গণমাধ্যম এ কথা জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

আগামী ১০ অক্টোবর ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ের তারিখ নির্ধারণ করা রয়েছে।

এ মামলার রায়কে সামনে রেখে কোন ধরনের নাশকতার সম্ভাবনা রয়েছে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এ ধরনের কোনো সম্ভাবনা নেই। পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা সার্বক্ষনিকভাবে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করছে এবং বর্তমান চলমান পরিস্থিতিকে সামনে রেখে পরিকল্পনা করছে।

তিনি বলেন, আগামী ১০ অক্টোবর কতিপয় চিহ্নিত দুর্বৃত্তের বিরুদ্ধে মামলার রায় দেওয়া হবে। তারা ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের মত মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব দেওয়া দল আওয়ামী লীগের একটি সমাবেশের ওপর ঘৃন্য গ্রেনেড হামলা চালিয়ে দলটিকে ধ্বংস করার পরিকল্পনা করেছিল। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, ওই অপরাধীদের বাঁচাতে কেউই রাস্তায় আসবে না।

স্বারাষ্টমন্ত্রী আরো বলেন, এ মামলার রায়ের মাধ্যমে জাতি আরো একটি কলঙ্কমুক্ত হবে।

এই মামলার রায়ের আগে ঢাকা মেট্টোপলিট্রন পুলিশ (ডিএমপি)’র প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া জানান, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে সামনে রেখে কাউকে কোন ধরনের নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে দেয়া হবে না।

তিনি বলেন, নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা, আদালত এলাকা, সরকারী অফিস সমুহে এবং রাজধানীর সর্বত্র যে কোনো ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা মোকাবেলা করতে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা গ্রহণ করা হবে।

মামলার রায়কে কেন্দ্র করে কোন ধরনের নাশকতার গোয়েন্দা রিপোর্ট আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত যতদূর সম্ভব এ মামলার রায়কে কেন্দ্র করে কোন নাশকতার গোয়েন্দা তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে সম্ভাব্য যে কোনো ধরনের পরিস্থিতি বিবেচনা করেই নিরাপত্তা পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব)’র গণমাধ্যম ও আইন শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান গণমাধ্যমকে জানান, আমরা এ মামলার রায়কে সামনে রেখে যে কোনো ধরনের নৈরাজ্য মোকাবেলা করতে বাহিনীর সকল ব্যাটেলিয়নকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছি।

তিনি বলেন, এ মামলার রায়কে সামনে রেখে কেউ যাতে কোনো ধরনের অন্তর্ঘাতমূলক কাজ করতে না পারে, সেজন্য আদালত এলাকাসহ সারাদেশে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মামলার রায়ের আগে কোনো ধরনের নাশকতার গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা এ বিষয়ে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করছি। সূত্র: বাসস।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

কার্যকর হলো ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন

বহুল আলোচিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে স্বাক্ষর করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুলবিস্তারিত পড়ুন

কোটাধারীদের শাহবাগ আন্দোলন স্থগিত

সরকারী চাকুরীতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা ৩০% বহাল এবং একই স্থানে প্রতিবন্ধীদেরবিস্তারিত পড়ুন

ইয়াবা বিপণন-সেবনের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড

সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে নতুন ‘মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮’ এরবিস্তারিত পড়ুন

  • অবশেষে মালয়েশিয়া যাচ্ছে ৭০ হাজার শ্রমিক
  • পদার্থে নোবেল পেলেন ৩ বিজ্ঞানী
  • সিনহার বিরুদ্ধে পাবনায় সাধারণ ডায়েরি
  • তফসিল ও নির্বাচনকালীন সরকার নভেম্বরে
  • ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন না হলে কঠোর আন্দোলন
  • আবাসিক এলাকায় পলিথিন কারখানা : বিপন্ন পরিবেশ
  • ১৭১ যাত্রীকে বাঁচালেন যে পাইলট
  • চট্টগ্রামে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাতি মামলার আসামি নিহত
  • ১০ জেলায় নতুন ডিসি
  • ইউএনওর ব্যতিক্রমী উদ্যোগ ‘মহানুভবতার দেয়াল’
  • রোহিঙ্গা ইস্যু: আন্তর্জাতিক পুরস্কার পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী