শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৭

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

প্রতিদিন দুই কোটি টাকা লেনদেন

ঝিনাইদহে যাত্রা ও মেলার নামে জুয়া, র্যাফল ড্র

amaderkonthosor-com

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহ জেলার পাঁচটি স্থানে যাত্রা ও মেলার নামে জুয়ার আসর বসছে। এসব স্থানে দেখানো হচ্ছে অশ্লীল নৃত্য। এসব অপতৎপরতার পাশাপাশি জেলা শহরের মোড়ে মোড়ে আকর্ষণীয় ও দামি পুরস্কার দেওয়ার লোভ দেখিয়ে বিক্রি করা হচ্ছে লটারি।

এসব লটারি কিনে ব্যবসায়ী, তরুণ ও সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ সর্বস্বান্ত হচ্ছে। এসব বন্ধে প্রশাসন ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ‘দৈনিক বেনারশি’, ‘দৈনিক সোনামনি’, ‘দৈনিক উল্লাস’সহ বিভিন্ন নামে চলছে টিকিট বিক্রি।

যাত্রা ও বিজয় মেলার নামে মাঠে বসছে হাউজি, ওয়ানটেন, চরকাসহ নানা রকম জুয়ার আসর। এতে আসক্ত হয়ে পড়ছেন তরুণ ও কিশোরেরা। এতে তাঁদের পড়ালেখার ক্ষতি হওয়ার পাশাপাশি সামাজিক অবক্ষয় ঘটছে বলে জানিয়েছেন একাধিক অভিভাবক। আয়োজক ও স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, ঝিনাইদহের দুটি স্থানে প্রতিদিনের র্যাফল ড্রয়ে ৪০-৫০ লাখ টাকা লেনদেন হচ্ছে। যাত্রার অনুষ্ঠানে জুয়া খেলায় আরও ৫০ লাখ টাকা লেনদেন হচ্ছে। এক হিসাব অনুযায়ী ঝিনাইদহে প্রতিদিন জুয়া খেলায় কোটি টাকার লেনদেন হয়।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মো. মাহবুব আলম তালুকদার বলেন, এসবের অনুমোদন তাঁর দপ্তর থেকে দেওয়া হয়নি। যারা এভাবে জুয়ার আসর বসাচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেবেন তিনি।সরেজমিনে দেখা গেছে, ঝিনাইদহ জেলা শহরের নিউ একাডেমি স্কুল মাঠ, হরিণাকুন্ডু পৌরসভার পাশে, শৈলকুপার বসন্তপুর, ভাটই, কোটচাঁদপুরের আজমপুরে জুয়ার আসর বসানো হয়েছে।

এর মধ্যে জেলা শহরের নিউ একাডেমি মাঠে বাণিজ্য মেলার নামে হাউজি ও বেনারশি র্যাফল ড্র চলছে। ঝিনাইদহ জেলা শিল্প ও বণিক সমিতি আয়োজিত এই মেলার লটারি প্রতিদিন আনুমানিক দুই শ গাড়ি দিয়ে বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করা হয়।

মোটরসাইকেল, নগদ টাকাসহ লোভনীয় সব পুরস্কারের ঘোষণা দিয়ে লটারি কিনতে উৎসাহিত করা হচ্ছে। একইভাবে মহেশপুর উপজেলার আজমপুর এলাকায় আয়োজিত বিজয় মেলায় চলছে দৈনিক সোনামনি র্যাফল ড্র। পাশাপাশি যাত্রার নামে চলছে অশ্লীল নৃত্য। আরও চলছে জুয়ার আসর। শৈলকুপা পৌর এলাকার নতুন ব্রিজ এলাকায় গত ২৯ ডিসেম্বর থেকে আরেকটি যাত্রা ও পুতুলনাচের অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে। সব প্রস্তুতি শেষ হয়েছে এই স্থানে যাত্রা অনুষ্ঠানের। হরিণাকুন্ডু উপজেলা শহরে অনুষ্ঠিত যাত্রার নামে জুয়ার আসর গত ২১ ডিসেম্বর শেষ হয়েছে। যাত্রার নামে জুয়ার আসর ও অশ্লীল নৃত্যের আয়োজন করায় এলাকার লোকজন ফুঁসে ওঠে।

পরে আয়োজকেরা ওই অনুষ্ঠান বন্ধ করে দিতে বাধ্য হন। বর্তমানে কুলবাড়িয়া ও চরপাড়ায় দুটি প্যান্ডেল তৈরির কাজ চলছে।জেলা শহরের রিকশাচালক নাজিম উদ্দিন দিনে ৩০০ টাকা আয় করেন। এর মধ্য থেকে ১০০ টাকা দিয়ে কয়েক দিন ধরে বেনারশি র্যাফল ড্রয়ের পাঁচটি টিকিট কেনেন। বাকি টাকায় কষ্ট করে চারজনের সংসার চালান। তিনি বলেন, এই টিকিট কাটায় ঠিকমতো সংসার চালাতে পারেননি, তাই পরিবারের লোকজনের সঙ্গে বচসা হয়েছে, তারপরও টিকিট কিনে গেছেন।

শেষে কোনো পুরস্কার না পেয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন। এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি নাসির উদ্দিন বলেন, কিছুটা সমস্যা দেখা দিয়েছে। এভাবে লটারি হবে, তা তাঁরা বুঝে উঠতে পারেননি। তবে ভবিষ্যতে চেম্বার অব কমার্স এ জাতীয় মেলা আর করবে না।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

unnamed

হালুয়াঘাটে সাংসদ জুয়েল আরেং কে ফুলের শুভেচ্ছা

হালুয়াঘাট (ময়মনসিংহ)প্রতিনিধি:এম.এ.খালেক: হালুয়াঘাটে ১৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধায় নবনির্বাচিত কৃষকলীগের সভাপতির পক্ষবিস্তারিত পড়ুন

unnamed (6)

ঝিনাইদহঃ উদ্বোধন হল তিনদিনের লোক সঙ্গীত “বাউলের হাট” !

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহে ব্যাপক আয়োজনে ১৭ই ফেব্রুয়ারী শুক্রবার বিকালেবিস্তারিত পড়ুন

  • এস আইয়ের স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া ও খুনের অভিযোগে এসপি বাবুল আক্তারের বিরুদ্ধে
  • শৈলকুপায় মাদক ব্যবসায়ীর কারাদণ্ড
  • ২৫ বছর পৌরসভা এলাকা শৈলকুপার ২ ইউপি কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রনে
  • ঝিনাইদহে সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা
  • ঝিনাইদহে ধান ক্ষেত থেকে মস্তকবিহীন লাশ উদ্ধার
  • ঝিনাইদহে মস্তকবিহীন এক ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার, নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি, বয়স ৩৫-৪০ বছর
  • প্রয়াত সুরঞ্জিতের বিকৃত ছবি ফেসবুকে পোস্ট করায় মামলা, গ্রেপ্তার ১
  • ঝিনাইদহে সড়ক দুর্ঘটনায় কলেজ শিক্ষিকা নিহত- আহত ২৫
  • বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অনৈতিক সম্পর্ক, অর্থ আত্মসাৎ ও নির্যাতন
  • ঝিনাইদাহের মুক্তিযোদ্ধা দুঃখি মন্ডলের দুঃখ
  • তেলের অভাবে শৈলকুপা হাসপাতালে অ্যাম্বুলেন্স সেবা বন্ধ, চরম ভোগান্তিতে রোগীরা
  • ঝিনাইদহের বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হয়েও ফুটবলার ওহিদুলের ভাগ্যে জোটেনি সরকারী চাকরী !