বুধবার, অক্টোবর ১৭, ২০১৮

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

ডায়াবেটিস ও ব্যথায় ভুগছেন খালেদা জিয়া

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ডায়াবেটিস, বাত ও কোমরে ব্যথাসহ কিছু সমস্যায় ভুগছেন। কিছু পরীক্ষা দেয়া হয়েছে। রিপোর্ট পাওয়ার পর ওষুধ দেয়া হবে বলে জানিয়েছে মেডিকেল বোর্ড।

মেডিকেল বোর্ড জানায়, খালেদা জিয়া গেঁটে বাতজনিত সমস্যায় ভুগছেন। তার ডায়াবেটিসসহ বেশকিছু রোগ অনিয়ন্ত্রিত অবস্থায় আছে। এসব রোগ নিয়ন্ত্রণে আনতে হবে। এরপর তার মূল চিকিৎসা শুরু হবে।

সোমবার (৮ অক্টোবর) দুপুরে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের চারজন সদস্য সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

তবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) খালেদা জিয়ার চিকিৎসা কত দিন চলবে, তা নির্দিষ্ট করে এখনই বলতে পারছে না মেডিকেল বোর্ড।

বোর্ডের সদস্য অধ্যাপক সৈয়দ আতিকুল হক সাংবাদিকদের বলেন, খালেদা জিয়ার সমস্যাটা মূলত গেঁটে বাতজনিত।

বিএসএমএমইউয়ের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন বলেন, খালেদা জিয়া হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তিনি কেবিন ব্লকের ছয়তলায় অবস্থান করছেন। আমরা হাইকোর্টের একটি নির্দেশনা পেয়েছি। সেই অনুযায়ী মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। তার সঙ্গে আমাদের দেখা হয়েছে ও কুশলবিনিময় হয়েছে।

মেডিকেল বোর্ডের প্রধান অধ্যাপক আবদুল জলিল চৌধুরী বলেন, গত ৩০ বছর ধরে খালেদা জিয়া রিউমাটো আর্থ্রাইটিস রোগে ভুগছেন। এই রোগ কন্ট্রোলে না রাখার কারণে তার বিভিন্ন জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। তার বাম হাত বেঁকে গেছে, বাম কাঁধ নড়াতে পারেন না, হাত ঝিম ঝিম করে।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার ঘাড়ে ও কোমরে ব্যথা আছে। তার বাম হিপজয়েন্টে আর্থ্রাইটিস আছে। তার দুই হাঁটু আগে থেকে রিপ্লেস করা, সেখানে কিছুদিন আগে ফুলে গিয়েছিল। ওষুধ দিয়ে তা ঠিক করা হয়েছে।

জলিল চৌধুরী আরো বলেন, উনি গত ২০ বছর ধরে ডায়াবেটিসে ভুগছেন। তাকে ডায়াবেটিস কন্ট্রোলের জন্য ইনসুলিন দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি তা নেননি। তার ডায়াবেটিসের কী অবস্থা সেটি আমাদের দেখতে হবে। মাঝখানে তার সুগার কমে হাইপো-ডায়াবেটিস হয়ে গিয়েছিল। তিনি ব্লাডপ্রেসারের ওষুধ খাচ্ছেন। মাঝখানে কিছুদিন আগে তার জ্বর হয়েছিল। সেটা এখন নেই। তার শরীরের সোডিয়াম কমে গিয়েছিল। ওষুধ দিয়ে সেটা নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে হাইকোর্টের নির্দেশনা বোর্ডের সদস্যরা পড়েছেন। বোর্ড গঠনে হাইকোর্টের নির্দেশনার কোনো ব্যত্যয় ঘটেনি।

সোমবার রাতেও মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বলে মেডিকেল বোর্ডপ্রধান জানান।

গত ৬ অক্টোবর আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

শনিবার বিকেল পৌনে ৪টার দিকে বিএসএমএমইউতে ভর্তি করা হয় খালেদা জিয়াকে।

গত বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের দেয়া নির্দেশনা অনুযায়ী, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য মোট পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডাদেশ দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫। এরপর থেকে খালেদা জিয়া নাজিম উদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

লুটেপুটে খায় এমন প্রার্থীদের বর্জন করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পের বরাদ্দ লুটেপুটে খায় এমন প্রার্থীদের বর্জন করেবিস্তারিত পড়ুন

‘দুষ্টের দমন ও শিষ্টের পালনের জন্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দুষ্টেরবিস্তারিত পড়ুন

ফখরুলসহ বিএনপির ৭ নেতার আগাম জামিন

সরকারবিরোধী উস্কানিমূলক বক্তব্য এবং পুলিশের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে রাজধানীরবিস্তারিত পড়ুন

  • বামদের সঙ্গে ‘ম্যাক্সিমাম’ ঐক্য চান ওবায়দুল কাদের
  • বিএনপির সঙ্গে ঐক্য গড়ার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে
  • ভোটের অধিকার নিশ্চিত করাই ছিল আমার মূল লক্ষ্য : প্রধানমন্ত্রী
  • সমাবেশই প্রমাণ করে বিএনপি জনবিচ্ছিন্ন দল : কাদের
  • বিএনপির ৭ দফা ও ২ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা
  • বিএনপি মানে মরা গাঙ্গ, যে গাঙ্গে কখনো জোয়ার আসে না
  • যে কোনো মূল্যে জনসভা করবে বিএনপি
  • মানুষ বিএনপিকে আর ভোট দেবে না
  • সেপ্টেম্বরে ৩ হাজার মামলায় সোয়া ৩ লাখ আসামি
  • ‘অন্তর্জ্বালা থেকে সিনহার মনগড়া ও ভুতুড়ে কথা’
  • খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতেই বিচার চলবে : আদালত