শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৭

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

ফেসবুক এবং গুগলের যুগে ডিজিটাল বিজ্ঞাপন প্ল্যাটফর্ম পরিকল্পনা করলে ভুল-ই হবে

বর্তমানে ফেসবুক এবং গুগল ব্যবহার করেন না এমন লোক খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তির দুনিয়ায় এ দুটি প্রতিষ্ঠানের রয়েছে একচ্ছত্র আধিপত্য এবং এই দুটি প্রতিষ্ঠানের দ্রুত বর্ধনের পিছনে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখছে ডিজিটাল বিজ্ঞাপন।

কিন্ত ফেসবুক এবং গুগলের জয়জয়কার দেখে কোনো বিনিয়োগকারী যদি কোনো ডিজিটাল বিজ্ঞাপন প্ল্যাটফর্ম দাঁড় করানোর পরিকল্পনা করে থাকেন তাহলে তিনি ভুল-ই করবেন। কারণ যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞাপন গবেষণা সংস্থা ইন্টারেক্টিভ অ্যাডভার্টাইজিং ব্যুরো (আইএবি) এর বার্ষিক প্রতিবেদন দেখা যায় যে, এ দুটি প্রতিষ্ঠান যুক্তরাষ্ট্রের ডিজিটাল বিজ্ঞাপনের ৯৯% বাজার দখল করে আছে।

অন্যান্য ডিজিটাল বিজ্ঞাপন সংস্থার তুলনায় ফেসবুক এবং গুগলের এই দ্রুত বর্ধনশীল হওয়ার পিছনে একমাত্র কারণ হলো মানুষ তাদের সাইট এবং অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে সর্বাধিক সময় ব্যয় করছে।

ডিজিটাল বিজ্ঞাপনের দুনিয়ায় ফেসবুকের প্রভাব সবচেয়ে বেশি। গত বছর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডিজিটাল বিজ্ঞাপন ব্যয়ের ৪৪% ছিল ফেসবুকের দখলে যার মোট পরিমাণ ৩১.৭ বিলিয়ন ডলার। ২০১৫ সালের তুলনায় এটি ২৯% বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১৬ সালে ফেসবুকের বিজ্ঞাপন রাজস্ব বৃদ্ধি পেয়েছে ৬১.৭% যা সামগ্রিক ডিজিটাল বিজ্ঞাপন বাজারের দ্বিগুণেরও বেশি।

ফেসবুক ব্যবহারকারীরা ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও মেসেঞ্জারের মধ্যে গড়ে প্রতিদিন গড়ে ৫০ মিনিট ব্যয় করেন এবং তাদের ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১.৯ বিলিয়ন। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো এই সংখ্যাও এখন দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

অনুরূপভাবে অনুসন্ধান বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম গুগল। গুগল স্মার্টফোনের বৃদ্ধির ফলে ব্যাপকভাবে উপকৃত হচ্ছে এবং এমন কোনো বিকল্প এখনো তৈরি হয়নি যা মানুষকে তাদের ফোন থেকে গুগল এর মাধ্যমে কোনো কিছু খুঁজতে বাধা হয়ে দাড়াতে পারে।

ফলস্বরূপ গুগল এর মাধ্যমে অনুসন্ধান দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং এ থেকে গুগলও উপকৃত হচ্ছে। এছাড়াও ইউটিউব এর ক্রমবর্ধমান জনপ্রিয়তা থেকেও গুগল উপকৃত হচ্ছে এবং ইউটিউব এ বিজ্ঞাপন প্রদর্শন তাদের রাজস্ব বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখছে।

মোবাইল ডিভাইসে ডিজিটাল বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের ক্ষেত্রে ফেসবুক এবং গুগল এর প্রভাব আরো বেশি। গুগল মোবাইল অনুসন্ধান বৃদ্ধির ফলে অধিক উপকৃত হচ্ছে।

আইএবি এর তথ্যানুসারে, গুগল এর ডেস্কটপ অনুসন্ধান বিজ্ঞাপন গত বছর ১৩% হ্রাস পেয়েছে কিন্তু মোবাইল অনুসন্ধান বিজ্ঞাপন ৯১% বেড়েছে। মোবাইলের মাধ্যমে অনুসন্ধানের প্রায় ৯৫% ই হয় গুগলে।

একইভাবে মোবাইল ডিভাইসগুলোতে চালিত অ্যাপ্লিকেশনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে প্রভাবশালী ফেসবুক। ব্যবহারকারীরা গত চতুর্থ কোয়ার্টারে প্রতিদিন পাঁচ ঘণ্টারও বেশি সময় এই অ্যাপসে ব্যয় করছেন।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

রবি গ্রাহকদের জন্য সুখবর ! ছাড় পাবেন উবারে !

দেশের অন্যতম মোবাইল ফোন অপারটের রবি এবং বিশ্বের বৃহত্তম অন-ডিমান্ডবিস্তারিত পড়ুন

মেধাসত্ত্ব সংরক্ষণের দাবি ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে

বিশেষজ্ঞগণ ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের জন্য মেধাসত্ত্ব সংরক্ষণ ও এই সংক্রান্তবিস্তারিত পড়ুন

লক খুলবে মুখ দেখেই আইফোন ৮

আগামী সেপ্টম্বরেই বাজারে আসছে বহুল আকাঙ্ক্ষিত আইফোন-৮। আইফোনের নতুন এইবিস্তারিত পড়ুন

  • এবার থেকে হোয়াটসঅ্যাপেও টাকা লেনদেন! জেনে নিন কীভাবে
  • ফেসবুক হ্যাক হয় যেভাবে
  • ধর্ষণ থেকে আত্মহত্যা! সবই পাওয়া যাচ্ছে গেমে
  • এলিয়েন তাড়ালেই নাসাতে মিলবে কোটি টাকার চাকরি
  • রাত্রে বিছানায় মোবাইল নিয়ে ঘুমনো অভ্যেস? জানেন না, কতবড় ভুল করছেন
  • দিনে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন ১০০ কোটি মানুষ
  • ফেসবুকে দামি গাড়ি, গয়নার ছবি পোস্ট করেছেন? সর্বনাশ!
  • বিশ্বের সেরা ধনী বিল গেটসের ভবিষ্যদ্বাণী
  • নতুন সেলফি এক্সপার্ট ফোন ‘সিম্ফনি পি৯’
  • স্মার্টফোন চার্জ দেওয়ার সময় এই দশটি ভুল কখনোই করবেন না!
  • বিশ্বের দুটি অঞ্চলে স্পিড লিমিট ফিচার, আসতে পারে বাংলাদেশেও