সোমবার, অক্টোবর ২৩, ২০১৭

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

বিদ্যালয়ে শিক্ষকরা অনুপস্থিত : পক্সি দিয়ে চলছে বার্ষিক পরীক্ষা

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার যমুনার চরে প্রাথমিক শিক্ষার বেহালাবস্থা বিরাজ করছে। গত শনিবার উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নে চর বরুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক গণিত পরীক্ষা চলাকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যালয়টিতে প্রাক প্রাথমিকসহ সরকারি নিয়োগ প্রাপ্ত ৫ জন শিক্ষক কর্মরত থাকার কথা থাকলেও ওই দিন একজন শিক্ষককেও উপস্থিত পাওয়া যায়নি।

বিদ্যালয়ে আসা কয়েক জন ছাত্র/ছাত্রীর বার্ষিক পরীক্ষা নিচ্ছে পক্সি শিক্ষক আবু কালাম আজাদ ও তার স্ত্রী নাছিমা। শিক্ষার কোন পরিবেশই নেই বিদ্যালয়টিতে। চারি দিকে মৌঁচাকের বাসা বেঁধেছে বিদ্যালয়টিতে। স্থানীয়দের অভিযোগ, শিক্ষা অফিস থেকে কেউ খোজঁও নেয় না বিদ্যালটির।

এলাকাবাসী জানায়, প্রধান শিক্ষক রমজান আলী ও তার স্ত্রী সহকারি সাহিদা স্কুল ফাঁকি দিয়ে মাসের পর মাস জামালপুর জেলা শহরে অবস্থান করায় অন্যান্য সহকারী শিক্ষকরাও মাসে এক দিনও স্কুলে আসে না। যার ফলে বিদ্যালয়টি পাঠদান কার্যক্রম বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে দীর্ঘদিন ধরে। নিয়মিত শিক্ষকরা অনুপস্থিত থাকায় লেখা পড়া না হওয়ায় ঝড়ে পড়ছে শিশু শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, মাসে ৩ হাজার টাকার বিনিময়ে স্থানীয় আবু কালাম আজাদ নামে একজন পক্সি শিক্ষক দিয়ে নামমাত্র স্কুল খোলা রেখে সরকারের টাকা আত্বসাত করছে শিক্ষকরা। বিদ্যালয়টিতে সরেজমিনে গিয়ে শিক্ষক হাজিরা কোন খাতা পাওয়া যায়নি। পক্সি শিক্ষক আবু কালাম আজাদ জানান, শিক্ষক হাজিরা খাতা প্রধান শিক্ষকের কাছে থাকে। আমি এর বেশি কিছু জানি না।

বিদ্যালয়টিতে রমজান আলী নামে একজন প্রধান শিক্ষক, সাহিদা, শারমিন, লাভলী ও তোফাসহ ৫ জন শিক্ষক কর্মরত রয়েছেন। প্রথম শ্রেনিতে ৫০, দ্বিতীয় শ্রেণিতে ৪৭, তৃতীয় শ্রেনিতে ৩০, চতুর্থ শ্রেনিতে ২৫ ও সমাপনী ৫ জনসহ মোট ১৮২ জন ছাত্র/ছাত্রী রয়েছে।

শিক্ষার্থীদের অভিভাবক কুদ্দুস, নজর দেওয়ানী, নাছিমা, শাহিন, আব্দুল মোতালেব দেওয়ানী ও শাহজাহান যৌথভাবে জানান, বিদ্যালয়ে শিক্ষক/শিক্ষিকারা না আসার কারণে আমাদের ছেলে মেয়েরা লেখা পড়া থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বিদ্যালটির প্রায় ১০ বছর ধরে কমিটির কোন অস্তিত নেই বলেও জানান এলাকাবাসী। বিদ্যালয়টি উন্নয়নে সরকারি বরাদ্ধ আসলেও তা কাজ না করে ভূয়া বিল-ভাওচারে আত্বসাত করে প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষকরা।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষকদের মোঠো ফোনে বারবার চেষ্ঠা করেও যোগাযোগ না পাওয়ায় তাদের মন্তব্য দেয়া গেল না। এ ব্যাপারে সংশিষ্ট ক্লাস্টার উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার খুরশেদ আলম চৌধুরী সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, আপনারা পত্রিকায় রিপোর্ট লিখেন যাতে বিদ্যালয়টিতে শিক্ষার পরিবেশ ফিরে আসে। অভিযুক্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে প্রয়োনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

দুর্ভোগে নগরবাসী টানা বৃষ্টি

রাজধানীতে জনজীবন বিপর্যস্ত বৃহস্পতিবার থেকে টানা বর্ষণে। বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিরবিস্তারিত পড়ুন

তিন টাকায় ডিমঃ সস্তার ডিম নিয়ে কাড়াকাড়ি

রাজধানীর ফার্মগেটে খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে ডিম মেলায় সস্তায় ডিমবিস্তারিত পড়ুন

নোয়াখালীতে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ

পেট্রলবোমা হামলার মামলায় দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাবিস্তারিত পড়ুন

  • ঋণের বোঝা নিয়ে দম্পতির ‘আত্মহত্যা’
  • নিখোঁজের ১৪ দিন পর বাড়ি ফিরলেন মেয়র
  • দুই ইঞ্জিনিয়ার ছেলে মাকে পিটালেন সম্পত্তির লোভে !
  • জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে বাড়ি ঘিরে অভিযান
  • আগুনে পুড়ে সন্তান দগ্ধ, মায়ের মৃত্যু !
  • আসন্ন নির্বাচন ঢাকা-১৪: খালেক পরিবারেই থাকছে ধানের শীষ?
  • বিএনপি সভাপতি কারাগারে, শনিবার বগুড়ায় অর্ধ দিবস হরতাল
  • রেড ক্রিসেন্টের ত্রাণবাহী ট্রাক খাদে, ৬ নিহত
  • ভোগান্তির চিরচেনা বৃষ্টির সাগর মিরপুর
  • ধারণা করা হচ্ছে শ্বাসরোধে হত্যাঃ নিখোঁজ মাদরাসা ছাত্রের মৃতদেহ উদ্ধার !
  • ঢাকা-১৫ঃ কামাল মজুমদারের সঙ্গে মাঠে আরো পাঁচ প্রার্থী
  • মা ফিরে এসে দেখে পাশের একটি ঘরে কিশোরী পান্নার ঝুলন্ত লাশ ! বিক্ষোভ চলছেই