রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

মনোবল ভাঙবেন না, যা যা দরকার করব

সরকারের পক্ষ থেকে বন্যার্তদের ক্ষতি কাটিয়ে উঠার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বন্যার্তদের মনোবল না ভাঙারও আহ্বান জানান।

আজ শনিবার সকালে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় এক সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। বন্যা পরিস্থিতি দেখতে এবং দুর্গত মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করতে সকালে গোবিন্দগঞ্জে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী।

সকাল ১০টায় দিকে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী হেলিকপ্টার গোবিন্দগঞ্জের বোয়ালিয়ায় অবতরণ করে। সেখানে প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও আওয়ামী লীগের নেতারা তাঁকে স্বাগত জানান। প্রধানমন্ত্রীকে এক নজর দেখার জন্য সকাল থেকেই হাজার হাজার মানুষ গোবিগঞ্জে জড়ো হয়।

সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রীর গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরে যান। সেখানে বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মাঝে চারা বিতরণ করেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বন্যা দুর্গত এলাকায় প্রতিটি মানুষের খাদ্যের নিশ্চয়তা করা হবে। বন্যা দুর্গত এলাকায় রাস্তাঘাট শিগগির মেরামত করে দেওয়া হবে। সরকারের কৃষি ঋণ অব্যাহত থাকবে। বন্যার পানি নেমে গেলে সাধারণত রোগ, অসুখ-বিসুখ দেখা দেয়। পর্যাপ্ত প্রস্তুতি আমাদের রয়েছে। নিরাপদ খাবার পানির ব্যবস্থা আমরা করে দেব।’

‘আপনাদের জন্য সরকারের যা যা করার দরকার আমরা করব। আপনারা মনোবল ভাঙবেন না। আওয়ামী লীগ আপনাদের পাশে আছে, ভবিষ্যতেও থাকবে। এই সাহস দেওয়ার জন্য আমি আজকে আপনাদের এখানে এসেছি।’

প্রধানমন্ত্রী এ সময় সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প তুলে ধরে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ মানুষের জীবনমান উন্নয়নের জন্য অবিরাম কাজ করে যাচ্ছে। আমরা শুধু মানুষের ভাতের অধিকার নিশ্চিত করতে চাই না। আমরা তাদের পুষ্টির নিশ্চয়তাও নিশ্চিত করতে চাই।’

আওয়ামী লীগ সভাপতি আরো বলেন, ‘আমরা রাষ্ট্র পরিচালনা করতে এসে নিজেদের বিত্তবৈভব গড়ে তুলতে চাই না। মানুষের মৌলিক অধিকার পূরণ করাই আওয়ামী লীগের প্রধান কাজ। আর যারা আগুনে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করে তাঁরা মানুষের কল্যাণ চায় না। তাঁরা মানুষকে ধ্বংস করতে চায়। তাদের প্রতিরোধ করতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী এ সময় সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্ত থেকে মানুষকে দূরে থাকার আহ্বান জানান।

পরে প্রধানমন্ত্রী গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পরিষদ হলরুমে রাজনৈতিক নেতা, স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তি এবং বন্যা ব্যবস্থাপনার সঙ্গে সম্পৃক্ত সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী বিকেলে বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি উপজেলায় যাবেন এবং সেখানে সারিয়াকান্দি হাই স্কুলমাঠে বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী ও ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মধ্যে বীজ বিতরণ করবেন।

প্রধানমন্ত্রী পরে সারিয়াকান্দি ডিগ্রি কলেজ হলরুমে রাজনৈতিক নেতা, স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তি এবং বন্যা ব্যবস্থাপনার সঙ্গে সম্পৃক্ত সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। তিনি বিকেলে ঢাকায় ফিরে আসবেন।

এর আগে শেখ হাসিনা গত ২০ আগস্ট দেশের উত্তরাঞ্চলীয় বন্যাদুর্গত দুটি জেলার বন্যার্তদের অবস্থা দেখতে দিনাজপুর ও কুড়িগ্রাম সফর করেন।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে টেলিযোগাযোগ সুবিধা ৩ দিনের মধ্যে

রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে আগামী তিন দিনের মধ্যে টেলিযোগযোগ সুবিধা চালুবিস্তারিত পড়ুন

স্থগিত হওয়া নির্বাচন আজ

বন্যার কারণে স্থগিত থাকা জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনেরবিস্তারিত পড়ুন

বেসরকারী উদ্যোগে ত্রাণ কমে গেলে মানবিক বিপর্যয়ের শঙ্কা

প্রাণ বাঁচাতে যেসব রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিয়েছেবিস্তারিত পড়ুন

  • দুই দলের সঙ্গে ইসির সংলাপ আজ
  • রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে প্রধানমন্ত্রী যে ছয়টি প্রস্তাব তুলে ধরেছেন
  • প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনে ‘মানবতা দিবস’ পালনের প্রস্তাব
  • পরিবেশ বিপর্যয়ের শঙ্কাঃ চার হাজার একর পাহাড় কেটে রোহিঙ্গা বসতি
  • ইমরান এইচ সরকার ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা !
  • ‘চাল নিয়ে চিন্তার কারণ নেই’
  • কক্সবাজারে হবে মিডিয়া সেন্টারঃ রোহিঙ্গাদের সহায়তার উদ্দেশ্যে
  • দেশে ফিরেছেন ৫২ হাজার হাজি ১৪২ ফ্লাইটে
  • বাংলাদেশের পাশে থাকার আশ্বাস ট্রাম্পেরঃ রোহিঙ্গা ইস্যুতে
  • রোহিঙ্গাদের দুর্ভোগের শেষ কোথায় ! আশ্রয়স্থল তলিয়ে যাওয়ায় খুঁজতে হচ্ছে নতুন জায়গা !
  • কমবে চালের দামঃ অব্যাহত রাখলে অভিযান
  • সফরসূচি তথ্যঃ নিউইয়র্কে আজ ব্যস্ত দিন কাটাবেন প্রধানমন্ত্রী