শনিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৮

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

মা ফিরে এসে দেখে পাশের একটি ঘরে কিশোরী পান্নার ঝুলন্ত লাশ ! বিক্ষোভ চলছেই

নেত্রকোনা জেলার সদর উপজেলার ঠাকুরাকোনা গ্রামের কিশোরী পান্না আক্তারের ধর্ষক ও আত্মহত্যায় প্ররোচণাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ, মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ রোববার বিকেল ৫টায় জেলা শহরের মোক্তারপাড়া সড়কে সচেতন নাগরিক সমাজের উদ্যোগে কয়েকটি সংগঠনের ব্যানারে এ মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য দেন সিপিবির জেলা শাখার সভাপতি অধ্যাপক মোস্তফা কামাল, প্রেসক্লাব সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল, উদীচীর সভাপতি মোজাম্মেল হক বাচ্চু, নারী প্রগতি সংঘের কেন্দ্র ব্যবস্থাপক আলী আমজাদ খান, মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদিকা তাহেজা বেগম, জেলা টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ভজন দাস, সাংবাদিক সঞ্জয় সরকার, আলপনা বেগম, সাংবাদিক পল্লব চক্রবর্তী, নেত্রকোনা সাহিত্য সমাজের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল্লাহ এমরান, অ্যাডভোকেট আলআমিন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মারুফ হাসান খনি অভ্র প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ধর্ষণ ও আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলা গ্রহণ এবং ধর্ষকদের গ্রেপ্তারে আলটিমেটাম ঘোষণা করেন। মৃত পান্না আক্তার সদর উপজেলার ঠাকুরাকোনা ইউনিয়নের রিকশাচালক লালচানের মেয়ে। সে ঢাকার একটি বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করত।

স্থানীয় কয়েকজন ও নিহতের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে গত ৩১ আগস্ট নেত্রকোনা সদর উপজেলার ঠাকুরাকোনা ইউনিয়নের গ্রামের বাড়িতে যায় পান্না। ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ভবনসংলগ্ন একটি ঘরে মা-বাবার সঙ্গে থাকত সে। ঈদের পরের দিন ঠাকুরাকোনার বখাটে তরুণ মামুন কৌশলে পান্নাকে ঘরের বাইরে ডেকে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয় মাছের খামারের একটি ঘরে নিয়ে মামুনসহ তিন তরুণ পান্নাকে ধর্ষণ করে। রাতে অনেক খোঁজার পর পান্নাকে মাছের খামারে পড়ে থাকতে দেখেন তার মা আলপিনা। এ সময় ধর্ষকরা তাঁকে নানা ভয়ভীতি ও হুমকি দেখায় বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য। ভয়ে তিনি বিষয়টি কাউকে জানাননি।

পরের দিন সোমবার পান্নাকে বাড়িতে রেখে তার মা কাজে বেরিয়ে পড়েন। ঘরে ফিরে পাশের একটি ঘরে পান্নার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান তার মা। খবর পেয়ে নেত্রকোনা মডেল থানার পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

পান্নার পরিবারের অভিযোগ, পান্নার লাশ উদ্ধারের পর থেকেই ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দিতে একটি প্রভাবশালী মহল চেষ্টা চালাচ্ছে। তারা ধর্ষকদের বাঁচাতে চাইছে।

ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে গত শুক্রবার থেকে টানা বিক্ষোভ করছে জেলার বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল মায়েরও

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মা ও ছেলের মৃত্যু হয়েছে।বিস্তারিত পড়ুন

হঠাৎ বাস বন্ধ, বিপাকে যাত্রীরা

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাট এলাকার বাসস্ট্যান্ড থেকে আজ সববিস্তারিত পড়ুন

দুর্ভোগে নগরবাসী টানা বৃষ্টি

রাজধানীতে জনজীবন বিপর্যস্ত বৃহস্পতিবার থেকে টানা বর্ষণে। বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিরবিস্তারিত পড়ুন

  • তিন টাকায় ডিমঃ সস্তার ডিম নিয়ে কাড়াকাড়ি
  • নিখোঁজের ১৪ দিন পর বাড়ি ফিরলেন মেয়র
  • দুই ইঞ্জিনিয়ার ছেলে মাকে পিটালেন সম্পত্তির লোভে !
  • আগুনে পুড়ে সন্তান দগ্ধ, মায়ের মৃত্যু !
  • আসন্ন নির্বাচন ঢাকা-১৪: খালেক পরিবারেই থাকছে ধানের শীষ?
  • ভোগান্তির চিরচেনা বৃষ্টির সাগর মিরপুর
  • ঢাকা-১৫ঃ কামাল মজুমদারের সঙ্গে মাঠে আরো পাঁচ প্রার্থী
  • এবার বসবে টেকসই ছোট বিন
  • তীব্র যানজটঃ ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত
  • আকরাম টাওয়ারে ১৪ তলায় আগুন, আগুন নিয়ন্ত্রণে
  • ঢাকা-উত্তরবঙ্গ ট্রেন বন্ধ !