শুক্রবার, অক্টোবর ১৯, ২০১৮

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

মেধাসত্ত্ব সংরক্ষণের দাবি ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে

বিশেষজ্ঞগণ ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের জন্য মেধাসত্ত্ব সংরক্ষণ ও এই সংক্রান্ত আইন যুগোপযোগী করার দাবি জানিয়েছে। তারা বলেন, টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য মেধাসত্ত্ব নিশ্চিত করতে হবে।

গতকাল ১৭ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম এবং বাংলাদেশ ইন্টেলেকচুয়্যাল প্রোপার্টি ফোরাম-এর যৌথ আয়োজনে ‘হার্নেসিং আইপিআর ফর সাসটেইনেবল গ্রোথ ইন বাংলাদেশঃ অপর্চুনিটিজ, চ্যালেঞ্জেস অ্যান্ড ওয়ে ফরওয়ার্ড’শীর্ষক সেমিনারে বিশেষজ্ঞরা এসব কথা বলেন।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রফেসর জে. এ. আর্স্টলিং, প্রফেসর এমিরেটাস, মিচেল হ্যামলিন স্কুল, হ্যামিল্টন বিশ্ববিদ্যালয়, যুক্তরাষ্ট্র এবং পরিচালক, বিশ্ব বুদ্ধিবৃত্তিক সম্পদ সংস্থা (ওআইপো)।

এটুআই প্রোগ্রামের পরিচালক (ইনোভেশন) এবং যুগ্ম সচিব মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় সেমিনার প্যানেল সদস্য হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) মো. মনজুরুর রহমান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডব্লিউটিও সেলের মহাপরিচালক মো. মুনীর চৌধুরী, বাংলাদেশ কপিরাইট অফিস এর রেজিস্ট্রার জাফর আর. চৌধুরী, পেটেন্ট, ডিজাইন ও ট্রেডমার্কস অধিদপ্তরের রেজিস্ট্রার মো. সানোয়ার হোসেন এবং বাংলাদেশ ইন্টেলেকচুয়্যাল প্রোপার্টি ফোরামের চেয়ারম্যান কাজী জাহিন হাসান।

ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে একটি কার্যকর মেধাসত্ত্ব ব্যবস্থা ও অবকাঠামো বিনির্মাণে বাংলাদেশের করণীয় সম্পর্কে আলোচনা ও গুরুত্ব আরোপ করার লক্ষ্যে এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

প্রফেসর জে এ আর্স্টলিং তাঁর বক্তব্যে সুদীর্ঘ কর্মজীবনের অভিজ্ঞতার আলোকে মেধাসত্ত্বের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রাখতে প্রয়োজন নতুন নতুন উদ্ভাবন। একই সঙ্গে নতুন নতুন উদ্ভাবন যুগোপযোগী আইনের মাধ্যমে মেধাসত্ত্ব নিশ্চিত করাও সমান গুরুত্বপূর্ণ।
বাংলাদেশ আইপি ফোরামের চেয়ারম্যান কাজী জাহিন হাসান বলেন, ‘দেশে মেধাসত্ত্ব নিশ্চিত করার সংস্কৃতি তৈরির লক্ষ্য নিয়ে যাত্রা শুরু করেছিল বাংলাদেশ আইপি ফোরাম। এরই ধারাবাহিকতায় প্রতিষ্ঠানটি প্রতিনিয়ত মেধাসত্ত্ব নিয়ে কাজ করছে। গীতিকার, সুরকার ও শিল্পীদের সিএমও প্রতিষ্ঠায় সহায়তা করা, কপিরাইট আইনের সংশোধন, খসড়া ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন এর রিভিউ সহ আরও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করছে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বাংলাদেশ ইন্টেলেকচুয়্যাল প্রোপার্টি ফোরাম এর প্রতিষ্ঠাতা ব্যারিস্টার এবিএম হামিদুল ও তথ্য মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ কপিরাইট অফিস, বাংলাদেশ ইন্টেলেকচুয়্যাল প্রোপার্টি ফোরাম এবং এটুআই প্রোগ্রামের কর্মকর্তাগণ ও বিভিন্ন গণমাধ্যম কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

কার্যকর হলো ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন

বহুল আলোচিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে স্বাক্ষর করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুলবিস্তারিত পড়ুন

কোটাধারীদের শাহবাগ আন্দোলন স্থগিত

সরকারী চাকুরীতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা ৩০% বহাল এবং একই স্থানে প্রতিবন্ধীদেরবিস্তারিত পড়ুন

ইয়াবা বিপণন-সেবনের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড

সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে নতুন ‘মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮’ এরবিস্তারিত পড়ুন

  • ‘গ্রেনেড হামলার রায় নিয়ে নৈরাজ্য সহ্য করা হবে না’
  • অবশেষে মালয়েশিয়া যাচ্ছে ৭০ হাজার শ্রমিক
  • পদার্থে নোবেল পেলেন ৩ বিজ্ঞানী
  • সিনহার বিরুদ্ধে পাবনায় সাধারণ ডায়েরি
  • তফসিল ও নির্বাচনকালীন সরকার নভেম্বরে
  • ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন না হলে কঠোর আন্দোলন
  • আবাসিক এলাকায় পলিথিন কারখানা : বিপন্ন পরিবেশ
  • ১৭১ যাত্রীকে বাঁচালেন যে পাইলট
  • চট্টগ্রামে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাতি মামলার আসামি নিহত
  • ১০ জেলায় নতুন ডিসি
  • ইউএনওর ব্যতিক্রমী উদ্যোগ ‘মহানুভবতার দেয়াল’
  • রোহিঙ্গা ইস্যু: আন্তর্জাতিক পুরস্কার পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী