বুধবার, নভেম্বর ২২, ২০১৭

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

রাষ্ট্রপতির অনুমোদন ছাড়াই ভিসি নিয়োগঃ কানাডিয়ান ইউনির্ভাসিটি

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বা ভিসির অনুমোদন নেই, তার সাথের আরো দুটি গুরুত্বপূর্ণ পদের চূড়ান্ত অনুমোদন নেয়া হয়নি রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে। অথচ তিন পদেই নিজেদের পছন্দের লোক বসিয়ে, ছাত্র ভর্তি করে এর মধ্যেই কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কানাডিয়ান ইউনির্ভাসিটি অব বাংলাদেশ। রাষ্ট্রপতি কাউকে নিয়োগ না দিলেও বিশ্ববিদ্যালয় নিয়োগ দিয়ে দিয়েছে একজনকে।

প্রো-ভিসি বা উপউপাচার্য, কোষাধ্যক্ষের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদেরও একই অবস্থা। এসব পদেও নিয়োগের আগে অনুমোদন নেয়া হয়নি। কিন্তু দিব্বি কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন দুই জন।

বিশ্ববিদ্যালয়টি বলছে, সরকারের কাছে পদ তিনটিতে নিয়োগ দেবার জন্য সব প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে কিন্তু এটিও স্বীকার করে নিয়েছেন যে এখনও রাষ্ট্রপতির চূড়ান্ত অনুমোদন মেলেনি। তার আগেই কীভাবে তিন পদে নিয়োগ দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম চলছে-সে প্রশ্নের সন্তোষজনক কোনো জবাব মেলেনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুযায়ী ভিসি, প্রো-ভিসি ও কোষাধ্যক্ষ পদের নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি। এই তিনটি পদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তাদের মনোনীত প্রার্থীর নামের তালিকা পাঠায় সরকারের কাছে। পদ তিনটির নিয়োগে ইউজিসির কোনো নিয়ন্ত্রণ থাকে না।

রাষ্ট্রপতি অনুমোদন না দিলেও কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের বিভিন্ন অনুষ্ঠান, ওয়েবসাইটসহ বিভিন্ন জায়গায় উপাচার্য হিসেবে উইলিয়াম এইচ ডেরেঞ্জারকে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়টির একজন কর্মকর্তা জানান, ‘ভিসিসহ পদ তিনটিতে নিয়োগের জন্য সরকারের কাছে বেশ কয়েকজনের নাম দিয়ে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। তবে এখনও অনুমতি পাওয়া যায়নি।’ তিনি জানান, প্রস্তাবনায় ভাইস চ্যান্সেলর হিসেবে উইলিয়াম এইচ ডেরেঞ্জার এর নাম আগে থেকেই দেওয়া হয়েছে। কারণ মালিকপক্ষের আস্থাভাজন তিনি।’

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বলেন, ‘আমরা ভিসি ও কোষাধ্যক্ষ পদে নিয়োগের জন্য মহামান্য রাষ্ট্রপতির কাছে তালিকা প্রেরণ করেছি। তবে এখনও প্রো-ভিসি পদের জন্য তালিকা রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয়নি। সেটির কাজ চলছে।’

রাষ্ট্রপতি নিয়োগ চূড়ান্ত করার আগে কেন ভিসি হিসেবে উইলিয়াম এইচ ডেরেঞ্জার এর নাম উল্লেখ রয়েছে তা জানতে চাইলে রেজিস্ট্রার বলেন, ‘এটা হয়ত অদক্ষ লোকের মাধ্যমে বা ভুল করে হয়েছে। এখন সেটা সংশোধন করে ‘ভিসি-ভারপ্রাপ্ত’ লিখে দেয়া হবে।’

২০১৫ সালে ২৯ ডিসেম্বর ছয়টি নতুন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন দেয় সরকার। প্রথম থেকেই নতুন অনুমোদন দেওয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর রাষ্ট্রপতির অনুমোদিত ভিসি, প্রোভিসি এবং কোষাধ্যক্ষের নিয়োগ সম্পন্ন করে তারপর কার্যক্রম শুরু করার কথা ছিল। অথচ কানাডিয়ান ইউনির্ভাসিটি অব বাংলাদেশ অনুমোদন পাওয়ার পরের বছর, অর্থাৎ ২০১৬ সাল থেকে তাদের ভর্তি কার্যক্রম শুরু করে দেয়। প্রতিষ্ঠানটি শিক্ষকসহ প্রয়োজনীয় বিভিন্ন পদে জনবল নিয়োগ দিয়েছে। এরই মধ্যে বনানীতে অবস্থিত ক্যাম্পাসটিতে আটটি বিভাগ খোলা হয়েছে। যেখানে কয়েক শতাধিক শিক্ষার্থীর ভর্তি সম্পন্ন হয়েছে এবং পাঠ কার্যক্রম চলছে।

বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তদারক সংস্থা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন বা ইউজিসির এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘শুধু এই বিশ্ববিদ্যালয় নয়, বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ের মালিকপক্ষই চান নিজেদের পছন্দের ব্যক্তিদের যত দিন সম্ভব ভাইস চ্যান্সেলরসহ গুরুত্বপূর্ণ পদগুলোতে রাখতে। তাহলে মালিকপক্ষের সুবিধা। কারণ সরকার অনুমোদিত ভিসি, প্রো-ভিসি ও কোষাধ্যক্ষের বেতন, সুযোগ-সুবিধা বেশি দিতে হয়। তাই তারা সরকারের কাছে ক্রটিপূর্ণ প্রস্তাব পাঠায়। যাতে পদগুলোতে সরকার মনোনীতদের নিয়োগ পেতে দেরি হয়। ফলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নিজেদের পছন্দ মতো লোক নিয়োগ করে টাকা বাঁচাতে পারে।’

ইউজিসির আরেক কর্মকর্তা জানান, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সরকারের কাছে তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ পদের জন্য (ভিসি, প্রো-ভিসি ও কোষাধ্যক্ষ) নিজেদের পছন্দের ব্যক্তির নামগুলো তালিকার প্রথম সারিতে দিয়ে থাকে। এতে তাদের মনোনীত ব্যক্তিরা সহজেই নিয়োগ পান। এছাড়া নিয়োগ প্রক্রিয়া সময় সাপেক্ষ করতে তারা কখনও কখনও ইচ্ছে করে ক্রটিপূর্ণ প্রস্তাবনা পাঠানো হয়। তবে ইউজিসি বিষয়টি টের পাবার পর সরকারকে সতর্ক করে দিয়েছে। ফলে ক্রটিপূর্ণ তালিকা দেয়া ও পছন্দের ব্যাক্তির নাম তালিকার প্রথমে রেখে নিয়োগ সম্পন্ন করাটা মালিকপক্ষের জন্য দুঃসাধ্য হয়ে গেছে।
সূত্র:ঢাকাটাইমস

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

টানা রাজনৈতিক সংকটের পর এবার মুগাবে অভিশংসনের মুখোমুখি

সপ্তাহব্যাপী চলা রাজনৈতিক সংকটের পর এবার জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবেকেবিস্তারিত পড়ুন

বাংলাদেশে আসছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি

মিয়ানমার সরকারের অমানবিক নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে লাখেবিস্তারিত পড়ুন

যে কারনে সেনাবাহিনীর দখলে জিম্বাবুয়ের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন

জিম্বাবুয়ের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জিম্বাবুয়ে ব্রডকাস্টিং করপোরেশন (জেডবিসি) দখলে নিয়েছে দেশটিরবিস্তারিত পড়ুন

  • বন্দুকধারীর গুলিতে শিশুসহ নিহত ৪
  • এত খুন এত ধর্ষণ কে করল তাহলে ?
  • অবশেষে আশ্বাস ওদের ফিরিয়ে নেবে মিয়ানমার
  • নিহত চার শতাধিকঃ ৭ দশমিক ৩ মাত্রার ভূমিকম্পে
  • বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসঃ ‘সকল গর্ভধারণ হোক পরিকল্পিত’
  • “আমাদের শহরের সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা সবার জন্য লজ্জার” অ্যাওয়ার্ড ফেরত
  • শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে ইরাক-ইরানে, নিহত ১৩৫
  • সমস্যার সমাধান চায় যুক্তরাষ্ট্র, শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নয়
  • ট্রাম্প ও পুতিন বৈঠকে মার্কিন নির্বাচনে হস্তক্ষেপ প্রসঙ্গ
  • সু চিকে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর চাপ প্রয়োগ
  • সেপ ব্ল্যাটারের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ
  • দাবি লেবাননেরঃ সৌদি আরব যুদ্ধ ঘোষণা করেছে