বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

এবার অভিযানে ফিফা

দুর্নীতির দায়ে সুইজারল্যান্ডের জুরিখ থেকে বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার ৭ কর্মকর্তার গ্রেপ্তার হওয়ার ঘটনায় টালমাটাল পুরো ফুটবল দুনিয়া।

শুধু কর্মকর্তা নয়, এখন খোদ ফিফার কর্মকা-ের দিকেই আঙ্গুল তুলছেন অনেকে। পরিস্থিতি বিবেচনায় সবকিছু খতিয়ে দেখতে বেশ আটঘাট বেঁধেই মাঠে নামছে ফিফা। তারই প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে বিভিন্ন দেশের ১১ জন কর্মকর্তাকে সাময়িক নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে সংস্থার এথিক্স কমিটি। পরবর্তী নির্দেশনা না পাওয়া পর্যন্ত ওই ১১ কর্মকর্তা জাতীয় কিংবা আন্তর্জাতিক ফুটবল সংশ্লিষ্ট কোনো কিছুতেই জড়িত হতে পারবেন না।

দুই সহ-সভাপতিসহ সাতজনকে গ্রেপ্তারের ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তদন্তে নেমে পড়েছে ফিফার এথিক্স কমিটি। নির্বাচনের জন্য যে সাজসাজ রব পড়েছিল জুরিখে অবস্থিত ফিফার সদর দপ্তরে, সেটাকে এথিক্স কমিটি ‘ড্যামেজ পার্টি’ নামে আখ্যায়িত করেছে। একই সঙ্গে ফিফার কার্যনির্বাহী কমিটিকে পরিচ্ছন্ন করার অভিযানেরও ঘোষণা দিয়েছে। সেই অভিযানের শুরুতেই কমিটি সাময়িক নিষিদ্ধ করেছে বিভিন্ন দেশের ১১ ফুটবল কর্তাকে। যার মধ্যে গ্রেপ্তার হওয়া ওই সাত কর্মকর্তাও আছেন। যে ১১ জনকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে তারা হলেন_ জেফ্রি ওয়েব, এডওয়ার্ডো লি, হুলিও রোকা, কস্তাস টাক্কাস, জ্যাক ওয়ার্নার, ইউজেনিও ফিগুয়েরেডো, রাফায়েল এস্কুইভেল, হোসে মারিয়া মারিন, নিকোলাস লিওজ, চাক বস্ন্যাজার এবং ড্যারিল ওয়ার্নার।

আর্টিকেল ৮৩’র অনুচ্ছেদ-১ এর ক্ষমতাবলে ওই ১১ ব্যক্তির ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা আরোপের নির্দেশ দিয়েছেন এথিক্স কমিটির ইনভেস্টেগেটোরি চেম্বারের চেয়ারম্যান। ফিফার এথিক্স কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘এথিক্স কমিটির ইনভেস্টেগেটোরি চেম্বার কর্তৃক প্রাপ্ত প্রাথমিক তথ্য-প্রমাণাদি এবং আমেরিকান অ্যাটর্নি অফিস কর্তৃক সরবরাহকৃত তথ্যের ভিত্তিতে এথিক্স কমিটির এডজুডিকেটরি চেম্বার চেয়ারম্যান হ্যান্স-জোয়াকিম একার্ট ১১ ব্যক্তিকে তাদের জাতীয় কিংবা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ফুটবলের কোনো কার্যক্রমে জড়িত হওয়ার ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল।’

আজ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ফিফার সভাপতি নির্বাচন। তার আগেই বুধবার ঘটেছে মহা কেলেঙ্কারি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল অফিস অব জাস্টিস ডিপার্টমেন্টের অনুরোধে জুরিখের হোটেল থেকে ঘুম ভাঙিয়ে ৭ ফিফা কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ফিফা নির্বাচনকে সামনে রেখেই সুইজারল্যান্ডের জুরিখে হাজির হয়েছিলেন ফিফার ওই কর্তাব্যক্তিরা_ যারা গত দুই যুগ ধরে শত শত কোটি ডলার ঘুষ-বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত বলে ধারণা করা হচ্ছে। ২০১৮ রাশিয়া এবং ২০২২ কাতারকে বিশ্বকাপের আয়োজক হওয়ার মর্যাদা পাইয়ে দিতে কোটি কোটি ডলার ঘুষ-বাণিজ্য হয়েছিল বলে আগে থেকেই অভিযোগ রয়েছে। ওই ৭ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার হওয়ার পর সেই অভিযোগ অনেকাংশেই সত্য বলে প্রমাণিত হয়েছে।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

মুস্তাফিজকে স্বাগত জানাল চেন্নাই সুপার কিংস

আগামী ২২ মার্চ পর্দা উঠছে বিশ্বের জনপ্রিয় ক্রিকেট লিগ ইন্ডিয়ানবিস্তারিত পড়ুন

তানজিদ-রিশাদের তাণ্ডবে সিরিজ জয় বাংলাদেশের

টস জিতে ব্যাট নেওয়া শ্রীলঙ্কা জানিত লিয়ানাগের সেঞ্চুরিতে ভর করবিস্তারিত পড়ুন

দুই নারী আম্পায়ারকে নিয়োগ দিচ্ছে বিসিবি

দেশের ক্রিকেটে নারীদের অগ্রযাত্রা চলছে। নিগার সুলতানা জ্যোতির দল দাপটেরবিস্তারিত পড়ুন

  • মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার ফাইনালে বাংলাদেশের নীলা
  • সিরিজ বাঁচার লক্ষ্যে
  • ক্রিকেটার ও সংসদ সদস্য সাকিব আল হাসান ফুটওয়্যারের ব্যবসায় নামছেন
  • বিপিএল চ্যাম্পিয়ন তামিমের ফরচুন বরিশাল
  • মোস্তাফিজকে ছেড়ে দিল মুম্বাই
  • গেইল ছাড়াই বাংলাদেশে আসছে উইন্ডিজ
  • পাকিস্তানের জালে বাংলাদেশের মেয়েদের ১৭ গোল
  • পুত্র সন্তানের বাবা হলেন ইমরুলও
  • এ বিজয় আমাদের : প্রধানমন্ত্রী
  • পাকিস্তানকে উড়িয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ
  • সপরিবারে এশিয়া কাপে নান্নু, খালি বাসায় চোরদের হানা
  • যে কদিন মাঠের বাইরে থাকতে হবে তামিমকে
  • Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *