সোমবার, জুন ১৭, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

কড়া নাড়ছে শীত, বাজারে উঠছে গরম কাপড়

ষড়ঋতুর পরিক্রমায় বিদায় নিচ্ছে শরতের শোভাময়ী আশ্বিন। আর দুদিন পরেই শুরু হচ্ছে কার্তিক। অগ্রহায়ণ পার হলেই শীতের বার্তা নিয়ে আসবে পৌষ। কিন্তু প্রকৃতি যেন এখনই শীতের পরশ বোলাতে শুরু করেছে। ঋতু পরিবর্তনের ফলে দুয়ারে কড়া নাড়ছে শীত।

পুরোপুরি শীত আসতে দেরি হলেও বাজারে আসতে শুরু করেছে গরম কাপড়। প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে ফুটপাত থেকে শুরু করে অভিজাত বিপণিবিতানগুলো। বেচাকেনা তেমন একটা জমে ওঠেনি। তবে দোকানিরা আশাবাদী, শীত একটু বাড়লে বাড়বে কেনাবেচাও।

ব্যস্ততা বেড়েছে নিউমার্কেট এবং কেরানীগঞ্জের পাইকানি বাজারে। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পাইকারি ব্যবসায়ীরা শীতের পোশাক কিনতে আসতে শুরু করেছেন। ঢাকার পাইকারি পোশাকের বাজারের অন্যতম হিসেবে পরিচিতি কেরানীগঞ্জের তৈরি পোশাকের বাজার। শীত সামনে রেখে এরই মধ্যে খুচরা ব্যবসায়ীরাও ভিড় জমাচ্ছেন এসব মার্কেটে।

জালাল উদ্দিন নামে এখানকার একজন পাইকারি ব্যবসায়ী বলেন, কেরানীগঞ্জের কালীগঞ্জ, পারগেন্ডারিয়া, কালীগঞ্জ তেলঘাট, আগানগর, কালীগঞ্জবাজার এলাকায় পাঁচ হাজারেরও বেশি রেডিমেড গার্মেন্টস রয়েছে। এ গার্মেন্টসগুলোতে দেশের বিভিন্ন এলাকার নারী-পুরুষসহ দেড় লাখ পোশাকশ্রমিক কাজ করেন।

তিনি জানান, কালীগঞ্জের পাঁচ হাজারের বেশি তৈরি পোশাক কারখানার মধ্যে তিন হাজার কারখানায় এ বছর শীতের পোশাক তৈরি হচ্ছে। অক্টোবর মাসের মাঝামাঝি সময় শুরু হয় শীতের পোশাক বিক্রি। চলে ডিসেম্বর পর্যন্ত।

এদিকে এরই মধ্যে রাজধানীর ফুটপাতসহ কিছু কিছু মার্কেটে বিক্রির পরসা সাজিয়ে বসেছেন দোকানিরা।

রাজধানীর বঙ্গবাজার মার্কেট, রাজধানী মার্কেট, গুলিস্তান, বায়তুল মোকাররম, মতিঝিল, ফার্মগেট, নিউমার্কেট এলাকার কিছু দোকানে শীতের কাপড় বিক্রি করতে দেখা যায়।

ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, দোকানগুলোতে প্রতিদিনই উঠছে শীতের কাপড়। পাওয়া যাচ্ছে কম্বল, উলের তৈরি সোয়েটার, ব্লেজার, টুপি, কাপড়ের জুতো, কেটস, জ্যাকেট, ট্রাউজার, গরম কাপড়ের তৈরি প্যান্ট, চাদরসহ নানা আইটেমের গরম কাপড়।

বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তর গেটের পাশে কম্বল এবং শীতের পোশাকের পসরা সাজিয়ে বসেছেন আবদুল মজিদ নামের একজন। তিনি বলেন, ‘বিক্রি পুরোপুরি এখনো শুরু হয়নি। তবে ক্রেতারা আসছেন।’

তিনি বলেন, ‘গত বছর খুব শীত পড়েছিল দেশে, এবারো তেমন হলে বিক্রি ভালো হতে পারে।’ তিনি জানান, তার কাছে ১৫০০ থেকে শুরু করে ৪ হাজার টাকা দামের কম্বল রয়েছে।’

গতকাল সোমবার বিকেলে কিছু কিছু ক্রেতাকে কম্বল এবং উলের তৈরি সোয়েটারের দরদাম করতে দেখা গেছে।

এদিকে বেচাকেনা এখনো জমে উঠেনি বলে জানান বায়তুল মোকাররম মসজিদের প্রধান গেটের সঙ্গে বসা দোকানি আজমলও। তিনি বলেন, ‘শীত তো এখনো আসেনি, তাই ক্রেতাও কম। এখন কিছু সোয়েটার, ট্রাউজার বিক্রি হচ্ছে। বিকেলের দিকে অফিস ফেরত কিছু মানুষ কিনছেন এসব কাপড়।’ রাইজিংবিডি

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

ঈদযাত্রায় মহাসড়কে  চলছে ধীরগতিতে গাড়ি

গতকাল শুক্রবার ঈদযাত্রায় মহাসড়কে  ধীরগতিতে চলেছে গাড়ি। ঢাকা-উত্তরাঞ্চল মহাসড়কে দিনভরবিস্তারিত পড়ুন

রাজধানীর পান্হপথে ৮০ কোটি টাকার খাসজমি উদ্ধার

রাজধানীর ঢাকা মহানগরের মোহাম্মদপুর রাজস্ব সার্কেল এর আওতাধীন শুক্রাবাদ মৌজায়বিস্তারিত পড়ুন

বুয়েট পাচ্ছে ১০০ কোটি টাকার ন্যানো ল্যাব  

 গবেষণার পরিসর বাড়াতে ন্যানো টেকনোলজি ১০০ কোটি টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশবিস্তারিত পড়ুন

  • বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় এক বাসার রান্নাঘরে বিস্ফোরণে শিশুসহ দগ্ধ ৪
  • বাজেট হয় কাগজে কলমে, প্রতিফলন নেই সমাজে
  • রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি
  • ভেঙে যাচ্ছে সুন্দরবনের উপকূলীয় এলাকা
  • ঢাকার প্রাকৃতিক জলাশয় রক্ষায় উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে: বিভাগীয় কমিশনার
  • রাজধানীতে পিস্তল লোড-ডাউনলোডের সময় অস্ত্রের দোকানের কর্মচারী গুলিবিদ্ধ
  • গাজীপুরে ট্রাকের পেছনে পিকআপের ধাক্কায় নিহত ২
  • গাজীপুরে পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু
  • বাড্ডায় গ্যাস লিকেজ থেকে বিস্ফোরণে দগ্ধ গৃহবধূর মৃত্যু
  • প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব হাফিজুরেরও নিয়োগ বাতিল
  • ঘূর্ণিঝড় রিমাল বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করেছে
  • মেট্রোরেল চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে