মঙ্গলবার, মে ২১, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

তামাক পণ্যে সচিত্র সতর্ক বার্তা প্রশ্নে রুল জারি

আইনে তামাক পণ্যের সচিত্র সতর্কবার্তা প্যাকেটে উপরিভাগের ৫০ শতাংশে রাখার বিধান থাকলেও সেটা বদলে নিচের অংশে ওই সতর্ক বার্তা ছাপানোর সুযোগ দিয়ে জারি করা গণবিজ্ঞপ্তিকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়েছে হাই কোর্ট।

এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি করে আজ বৃহস্পতিবার বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি জেএন দেব চৌধুরী বেঞ্চ এ রুল আদেশ দেয়। স্বাস্থ্য সচিব, আইন মন্ত্রণালয়ের লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সচিব এবং জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলের কো-অর্ডিনেটরকে ২ সপ্তাহের মধ্যে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে রিটকারীর পক্ষে শুনানি করেন এডভোকেট শাহদীন মালিক, তাকে সহযোগিতা করেন আইনজীবী মঞ্জুর আলম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল এসএম মনিরুজ্জামান।

এসএম মনিরুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, আদালত ওই গণবিজ্ঞপ্তিকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল দিয়েছে।
বেসরকারি সংস্থা উবিনিগ (প্রা.) লিমিটেড, গবেষণা সংস্থা প্রজ্ঞা এবং ‘প্রত্যাশা’ মাদক বিরোধী সংগঠনের দায়ের করা এক রিটে এই আদেশ আসে।

২০১৩ সালের এপ্রিলে ‘ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) (সংশোধন) আইন’ যে কয়েকটি কারণে প্রশংসিত হয়েছিল, তার একটি ছবিযুক্ত সতর্কবার্তা। তবে এই সতর্কবার্তা বাস্তবায়নের পদ্ধতি ছেড়ে দেয়া হয় বিধির উপর। সংশোধিত ওই আইনে তামাকজাত দ্রব্যের প্যাকেট, মোড়ক, কার্টন বা কৌটার উভয় পাশে মূল প্রদর্শনী তলের উপরের অংশের অন্তত ৫০ ভাগ স্থান জুড়ে রঙিন ছবি ও লেখা সম্বলিত সতর্ক বার্তা দেয়ার বাধ্যবাধকতা আরোপ করা হয়। যে সব প্যাকেট চৌকোণা নয় সেগুলোর মূল প্রদর্শনী তলের উপরে ৫০ ভাগ স্থানে এই সতর্ক বার্তা রাখতে বলা হয়। প্রায় ২ বছর সময় নিয়ে ২০১৫ সালের ১৯ মার্চ জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে ‘ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালা’ করে সরকার। তাৎক্ষণিক কার্যকারিতা দিয়ে করা বিধিমালা মেনে চলতে বাধ্যবাধকতা আসতে ১২ মাস সময় পায় তামাক কোম্পানিগুলো। ছাড়ের এই সময়সীমা শেষ এ বছরের ১৮ মার্চ।

এই বিধান কার্যকর হওয়ার কয়েকদিন পূর্বে তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলের জারি করা এক গণবিজ্ঞপ্তিতে সিগারেট, বিড়ি, জর্দা ও গুলসহ সব ধরনের তামাকজাত দ্রব্যের প্যাকেট, কার্টন বা কৌটার উপরের অংশের অন্যূন শতকরা ৫০ ভাগ স্থান জুড়ে সচিত্র স্বাস্থ্য সতর্কবাণী রাখার বাধ্যবাধকতাকে শিথিল করা হয়।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

কোকেনের সবচেয়ে বড় চালানে জড়িতদের নাম পেয়েছে ডিএনসি

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর দেশে কোকেনের সবচেয়ে বড় চালান জব্দের ঘটনায়বিস্তারিত পড়ুন

শপথ করছি, মাদক ছোঁব না

মাইকে ঘোষণা হলো ‘এখন মাদকের বিরুদ্ধে আমরা শপথ নেবো’। শপথবিস্তারিত পড়ুন

ক্ষতি বছরে ১ লাখ কোটি ডলারঃ ধুমপানের পিছনে

ধুমপানে প্রতি বছর বিশ্ব অর্থনীতির ক্ষতি হয় এক ট্রিলিয়ন বাবিস্তারিত পড়ুন

  • মাদকাসক্তদের জন্য যা করণীয়
  • টঙ্গীতে মাদকসহ মহিলা আ.লীগ নেত্রী আটক
  • মাদকের সয়লাবে বরগুনার পাথরঘাটা, বাড়ছে নানা অপরাধ প্রবনতা
  • ৩ কোটি টাকার মাদক ধ্বংস করেছে বিজিবি
  • ধূমপান বন্ধ করতে চান?
  • ‘জনস্বাস্থ্য উন্নয়নে তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবসায়ে লাইসেন্স প্রদাণের গুরুত্ব ও করনীয়’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলন
  • লক্ষ্মীপুরে মাদকাসক্ত পুত্রের বিরুদ্ধে পিতার অভিযোগ
  • কিডনি ও রক্ত বিক্রি করে নেশার টাকা দিতে মাকে মারধর
  • স্বাস্থ্য সতর্কবাণী দিচ্ছে না ৭৫ ভাগ তামাক কোম্পানি
  • মাদকসেবী ছেলেকে পুলিশে দিলেন মা-বাবা
  • বাজার দখলে মরিয়া জাপান টোব্যাকো