সোমবার, এপ্রিল ১৫, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

নতুন জামা কিনতে, মায়ের সামনেই বুকের ধনের মৃত্যু

গাজীপুর থেকে মায়ের সঙ্গে রাজধানী ঢাকায় ঈদের নতুন জামা কিনতে এসেছিল শিশু ফাহিম আহম্মেদ। গন্তব্য ছিল রাজধানীর নিউমার্কেট। তার আগেই ধানমণ্ডির আনোয়ার খান মডার্ন কলেজ হাসপাতালের কাছে বাসচাপায় মায়ের সামনেই নিহত হয় ফাহিম। চোখের সামনে বুকের ধনের মৃত্যু। সহ্য করতে পারছেন না মমতাময়ী মা ঝর্ণা বেগম। রাস্তায় পড়ে থাকা সন্তানের রক্তাক্ত লাশ বুকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। তার কান্নায় পথচারী ও আশপাশের লোকজন ছুটে আসেন। একপর্যায়ে ২টি বাস ভাংচুর ও একটি বাসে অগ্নিসংযোগ করে বিক্ষুব্ধ জনতা।

বাস দুটি জব্দসহ দুই চালককে আটক করেছে পুলিশ। নিহত ফাহিমের মামা জিতু জানান, ফাহিমদের বাড়ি গাজীপুরের শ্রীপুর থানার ডমনী গ্রামে। তার বাবা জাহাঙ্গীর আলম চা দোকানি। ফাহিমের বড় ভাই পাভেল আহম্মেদ রাজধানীর হাতিরপুলে ইস্টার্ন প্লাজার একটি দোকানের কর্মচারী। পাভেল হাজারীবাগে নানার বাসায় থাকে। মঙ্গলবার পাভেল ওই দোকান থেকে বেতন পেয়ে তার মাকে মোবাইল ফোনে বলেন, সে বেতন পেয়েছে। ছোট ভাই ফাহিম ও মা-বাবার জন্য ঈদের কেনাকাটা করবে। এজন্য ফাহিমকে নিয়ে মাকে ঢাকায় আসতে বলে পাভেল। বুধবার ছোট ছেলে ফাহিমকে সঙ্গে নিয়ে ঢাকায় আসছিলেন মা ঝর্ণা বেগম। কিন্তু মমতাময়ী মা কী জানতেন, ঈদের কেনাকাটা করতে এসে চিরদিনের জন্য বুকের ধনকে হারাতে হবে! কিন্তু তাই হল। তার বুকের ধনকে ঘাতক বাস কেড়ে নিল তার সামনেই।

প্রত্যক্ষদর্র্র্র্শীরা জানান, ভিআইপি ২৭ নম্বর বাসে করে গাজীপুর থেকে আসছিলেন ঝর্ণা ও তার ছেলে। বেলা দেড়টার দিকে ধানমণ্ডি ৭ নম্বর এলাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালের সামনে এসে বাসটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। এ সময় হেলপার যাত্রীদের নামিয়ে দিয়ে বলেন, গাড়ি চলবে না। বাস থেকে অন্য যাত্রীদের সঙ্গে সন্তানকে নিয়ে ঝর্ণা বেগমও নামেন। এরপর হেলপার যাত্রীদের অন্য বাসে উঠিয়ে দিচ্ছিলেন। এ সময় পেছন থেকে একটি বাস ফাহিমকে চাপা দেয়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। চোখের সামনে সন্তানের মৃত্যুতে কান্নায় ভেঙে পড়েন মা ঝর্ণা। পথচারী ও আশপাশের লোকজন ট্রান্স সিলভা ও ভিআইপি-২৭ বাস দুটি ভাংচুর করে। দুটি গাড়ির চালককে গাড়ি থেকে নামিয়ে মারধরও করে জনতা।

একপর্যায়ে ভিআইপি বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষুব্ধ জনতা। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ছুটে এসে আগুন নেভায়। ধানমণ্ডি থানার ওসি নূরে আযম জানান, দুই বাসের চালককে আটক করা হয়েছে। বাস দুটিও জব্দ করে থানায় রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, ভিআইপি ২৭ বাস থেকে যাত্রীদের নামিয়ে অন্য বাসে উঠানোর সময় পেছন থেকে একটি বাস এসে ফাহিমকে চাপা দেয়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে পাভেলসহ হাজারীবাগ থেকে ফাহিমের স্বজনরা ছুটে আসেন ঘটনাস্থলে। লাশ উদ্ধার করে বিকাল ৩টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায় পুলিশ। সেখানে লাশের ময়নাতদন্ত করতে বিলম্ব হওয়ায় স্বজনরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। একপর্যায়ে তারা ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ নিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

টাঙ্গাইলে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে ছাত্রলীগ নেতা জাহিদ হাসান ঝলককে বাড়ি থেকে ডেকেবিস্তারিত পড়ুন

সন্ত্রাসী হামলায় আইনজীবী আহত

নিজস্ব সংবাদদাতা : কোর্টে বিরোধীদলীয় মামলা পরিচালনা করার কারনে সন্ত্রাসীবিস্তারিত পড়ুন

রাজধানীতে হাতিরপুলের আগুন নিয়ন্ত্রণে

রাজধানীর হাতিরপুলে কাঁচাবাজার সংলগ্ন ‘রাজ কমপ্লেক্স’ ভবনের দ্বিতীয় তলায় লাগাবিস্তারিত পড়ুন

  • সোনারগাঁয়ে ভোটকেন্দ্রে গুলিবিদ্ধ হয়ে যুবক নিহত
  • মানিকগঞ্জে হুমকি দিয়ে মন্দিরের মাটি কেটে রাস্তা নির্মাণ
  • ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল মায়েরও
  • হঠাৎ বাস বন্ধ, বিপাকে যাত্রীরা
  • দুর্ভোগে নগরবাসী টানা বৃষ্টি
  • তিন টাকায় ডিমঃ সস্তার ডিম নিয়ে কাড়াকাড়ি
  • নিখোঁজের ১৪ দিন পর বাড়ি ফিরলেন মেয়র
  • দুই ইঞ্জিনিয়ার ছেলে মাকে পিটালেন সম্পত্তির লোভে !
  • আগুনে পুড়ে সন্তান দগ্ধ, মায়ের মৃত্যু !
  • আসন্ন নির্বাচন ঢাকা-১৪: খালেক পরিবারেই থাকছে ধানের শীষ?
  • ভোগান্তির চিরচেনা বৃষ্টির সাগর মিরপুর
  • ঢাকা-১৫ঃ কামাল মজুমদারের সঙ্গে মাঠে আরো পাঁচ প্রার্থী