মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

নভেম্বরে শুরু হচ্ছে যৌথ বাহিনীর অভিযান

শান্তিপূর্ণভাবে পৌরসভা নির্বাচন সম্পন্ন করতে মধ্য নভেম্বরে শুরু হচ্ছে যৌথ বাহিনীর সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান। আইনশৃংখলা বাহিনীর চলমান অভিযানের পাশাপাশি স্পর্শকাতর জেলাগুলোতে শুরু হবে এ অভিযান। অভিযানের মূল লক্ষ্য হচ্ছে- আইনশৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখা, নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি, ভোটারদের ভেতরে আস্থা তৈরি, প্রার্থীদের শান্তিপূর্ণ প্রচারের পরিবেশ সৃষ্টি করা এবং দলীয় নেতাদের আধিপত্য বিস্তার প্রতিরোধে গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রাখা। পাশাপাশি নির্বাচনে যেসব জেলা ঝুঁকিপূর্ণ বলে বিবেচিত হবে সেসব জেলায় টহল জোরদার, গোয়েন্দা নজরদারি ও অনুসন্ধান বৃদ্ধি এবং জামায়াত-শিবিরের নাশকতা মোকাবেলায় কঠোর অভিযান চালানো হবে। আইনশৃংখলা বাহিনীর সংশ্লিষ্ট সূত্র এবং কয়েকটি জেলার পুলিশ সুপারদের কথা বলে এমন তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।-খবর যুগান্তর।

নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হতে পারে পৌরসভা নির্বাচন। আর প্রথমবারের মতো দলীয়ভাবে আয়োজিত স্থানীয় সরকার নির্বাচন সরকারের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ। ফলে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে এ নির্বাচন সম্পন্ন করতে সরকার বদ্ধপরিকর বলে জানা গেছে।

আইনশৃংখলা বাহিনীর তথ্য অনুযায়ী যেসব জেলায় অভিযান চালানো হবে তার মধ্যে রয়েছে- সাতক্ষীরা, মেহেরপুর, ঝিনাইদহ, সিরাজগঞ্জ, জয়পুরহাট, লালমনিরহাট, নীলফামারী, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, পটুয়াখালী, গাইবান্ধা, ফরিদপুর, পাবনা, যশোর, দিনাজপুর, খুলনা, বগুড়া, ফেনী, লক্ষ্মীপুর, রংপুর, নোয়াখালী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, চুয়াডাঙ্গা, রাজশাহী, জামালপুর ও বরিশাল।

নির্বাচন কমিশন সূত্র জানায়, নির্বাচন উপযোগী ২৪৫ পৌরসভার তফসিল ঘোষণার পর যাতে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগকে তারা অবগত করবে। এর পাশাপাশি স্পর্শকাতর পৌরসভা এবং কোন কোন পৌরসভায় কটি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ সে বিষয়েও তথ্য দেয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে দিনাজপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) রুহুল আমিন বৃহস্পতিবার টেলিফোনে বলেন, সুশাসনের পূর্বশর্ত হল সুষ্ঠু নির্বাচন। পৌরসভা নির্বাচনে যাতে সব দলের-মতের লোকজন ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে আমরা সে ব্যবস্থা নিশ্চিত করব। তিনি বলেন, নির্বাচনে পরিবেশ যাতে সন্ত্রাসীগোষ্ঠী বাধাগ্রস্ত করতে না পারে সেজন্য আগেভাগেই জোরালো অভিযানের মাধ্যমে সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি করা হবে। দিনাজপুরের পুলিশ সুপার বলেন, বিশৃংখলা যে করবে তাকেই আইনের আওতায় আনা হবে। তিনি কোন দলের এটা বড় কথা নয়, বিশৃংখলা করলে তার পরিচয় সন্ত্রাসী হিসেবেই বিবেচিত হবে।

পুলিশের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ইতিমধ্যে জেলার পুলিশ সুপাররা সংশ্লিষ্ট থানাগুলোকে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছেন। জেলা পুলিশ সুপারদের পক্ষেও নির্বাচনকেন্দ্রিক সন্ত্রাসী ও আধিপত্য বিস্তারকারীদের দলীয় পরিচয়সহ একটি তালিকা করা হচ্ছে। নির্বাচনের আগে ব্যক্তিগত অস্ত্র ব্যবহারের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করা হতে পারে বলেও সূত্র জানায়।

জানতে চাইলে জয়পুরহাটের পুলিশ সুপার মোল্লা নজরুল ইসলাম বৃহস্পতিবার টেলিফোনে বলেন, পৌরসভা নির্বাচন যাতে নির্বিঘ্নে হয় সেজন্য পুলিশ সদর দফতর আগে থেকেই বিশেষ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, চলমান অভিযানের পাশাপাশি নভেম্বর থেকেই বিশেষ অভিযান শুরু হবে। আর কে কোন দলের বা কোন মতের তা দেখা হবে না। অপরাধী হলে তার রেহাই নেই।

চুয়াডাঙ্গার পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান বলেন, নির্বাচনকেন্দ্রিক অপরাধীদের শক্ত হাতে দমন করা হবে। কেউ যাতে আইনশৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে না পারে সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার একেএম হাফিজ আক্তার বলেন, ভোটের পরিবেশ নিশ্চিত করতে যা যা প্রয়োজন আইনশৃংখলা বাহিনী তাই করবে। পাশাপাশি সন্ত্রাসবিরোধী জোরালো অভিযান চালানো হবে। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, চট্টগ্রামে এখন পরিস্থিতি ভালো। আশা করছি নির্বাচনও এখানে সুষ্ঠু হবে।

এদিকে পুলিশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, নির্বাচনী পরিবেশসহ সব ধরনের প্রস্তুতি নির্বিঘ্ন করতে পুলিশ সদর দফতরে আইনশৃংখলা বাহিনীর নির্বাচনবিষয়ক বিশেষ বৈঠক হবে। ওই বৈঠকে সব মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার, ডিআইজি ও জেলার এসপিরা উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। পুলিশ মহাপরিদর্শক এসব কর্মকর্তাদের যথাযথ নির্দেশনা দেবেন।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঈদুল আজহার ত্যাগের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশবিস্তারিত পড়ুন

আবারও ১৯৭৪ সালের মতো পরিস্থিতি সৃষ্টির ষড়যন্ত্র চলছে

দেশে আবারও ১৯৭৪ সালের মতো পরিস্থিতি সৃষ্টির ষড়যন্ত্র চলছে বলেবিস্তারিত পড়ুন

উজানের ঢলে তিস্তা নদীর ডালিয়া পয়েন্টে পানি বৃদ্ধি

টানা বর্ষণ ও ভারত থেকে আসা উজানের পানিতে তিস্তা নদীরবিস্তারিত পড়ুন

  • জনশুমারিতে জন্মনিবন্ধনের বাইরে প্রায় তিন কোটি নাগরিক
  • সবুজবাগে পরিবেশমন্ত্রীর সেলাই মেশিন বিতরণ
  • ২১-২২ জুন ভারত সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
  • ওয়ার্ল্ড অব ওয়ার্ক সামিট-সোশ্যাল জাস্টিস ফর অল : শীর্ষ সম্মেলন
  • ঈদযাত্রায় মহাসড়কে  চলছে ধীরগতিতে গাড়ি
  • ঈদ যাত্রা নিরাপদ করতে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে 
  • জমজমাট শপিংমল-মার্কেট
  • ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনিতে মুখর হবে আরাফাত ময়দান
  • সড়কে যানজট নেই : ওবায়দুল কাদের
  • দেশের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে গাছ লাগাতে হবে : পরিবেশমন্ত্রী
  • উত্তরাঞ্চলের ঈদযাত্রা হবে নির্ঝঞ্জাট
  • সাবেক কমিশনার ওয়াহিদা রহমানের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা