শনিবার, জুন ২২, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

প্রেগন্যান্সি ও ডায়াবেটিস পরীক্ষায় বিজ্ঞানের নতুন আবিষ্কার!

মোবাইল ফোনে করা যাবে প্রেগন্যান্সি ও ডায়াবেটিস পরীক্ষা। এমন একটি সেন্সর উদ্ভাবন করেছেন জার্মানির বিজ্ঞানীরা। যুক্তরাজ্যের সংবাদ মাধ্যম ‘মিরর’ অনলাইনের এক খবরে এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, জার্মানির হ্যানোভার ইউনিভার্সিটির হ্যানোভার সেন্টার ফর অপটিক্যাল টেকনোলজিসের গবেষকেরা স্মার্টফোনে ব্যবহার উপযোগী ‘সারফেস প্লাজমন রিজোনেন্স’ বা ‘এসপিআর’ নামের একটি ফাইবার অপটিক সেন্সর উদ্ভাবন করেছেন।

গবেষকদের দাবি, এই স্বয়ংসম্পূর্ণ সেন্সরটি ডায়াবেটিস বা গর্ভধারণ পরীক্ষার মতো বিভিন্ন কাজে লাগানো যাবে। সেন্সরটি যে তথ্য সংগ্রহ করতে পারে, তা স্মার্টফোনের অ্যাপ্লিকেশনে ব্যবহার করা যাবে।

সেন্সরটি ঠিকমতো স্মার্টফোনের উপযোগী করা গেলে ব্যবহারকারীরা রক্ত, মূত্র, থুতু, ঘাম বা শ্বাস-প্রশ্বাস পরীক্ষা করতে পারবেন অনায়াসে। একইসঙ্গে চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজে এই সেন্সরে ধারণ করা তথ্য জিপিএস সংকেত ব্যবহার করে চিকিৎসকের কাছে পাঠাতে পারবেন ব্যবহারকারী।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

আজকের যত আয়োজন ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনে কেন্দ্রে আজ থেকে শুরু হতে যাচ্ছেবিস্তারিত পড়ুন

মোবাইল নম্বর ঠিক রেখেই অপারেটর পরিবর্তন করা যাবে: প্রক্রিয়া শুরু

মোবাইল ফোনের নম্বর ঠিক রেখে অপারেটর পরিবর্তন (মোবাইল নম্বর পোর্টেবিলিটি-এমএনপি)বিস্তারিত পড়ুন

স্মার্টফোন কিনে লাখপতি হলেন পারভেজ

নির্দিষ্ট মডেলের ওয়ালটন স্মার্টফোন কিনে পণ্য নিবন্ধন করলেই মিলছে সর্বোচ্চবিস্তারিত পড়ুন

  • অবশেষে বাংলাদেশে ১৯ অক্টোবর থেকে পে-প্যাল সেবা
  • রবি গ্রাহকদের জন্য সুখবর ! ছাড় পাবেন উবারে !
  • মেধাসত্ত্ব সংরক্ষণের দাবি ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে
  • লক খুলবে মুখ দেখেই আইফোন ৮
  • ফেসবুক এবং গুগলের যুগে ডিজিটাল বিজ্ঞাপন প্ল্যাটফর্ম পরিকল্পনা করলে ভুল-ই হবে
  • এবার থেকে হোয়াটসঅ্যাপেও টাকা লেনদেন! জেনে নিন কীভাবে
  • ফেসবুক হ্যাক হয় যেভাবে
  • ধর্ষণ থেকে আত্মহত্যা! সবই পাওয়া যাচ্ছে গেমে
  • এলিয়েন তাড়ালেই নাসাতে মিলবে কোটি টাকার চাকরি
  • রাত্রে বিছানায় মোবাইল নিয়ে ঘুমনো অভ্যেস? জানেন না, কতবড় ভুল করছেন
  • দিনে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন ১০০ কোটি মানুষ
  • ফেসবুকে দামি গাড়ি, গয়নার ছবি পোস্ট করেছেন? সর্বনাশ!