শনিবার, জুন ২২, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

ফ্লেক্সিলোড আর বিকাশে ভোট কেনা হয় : সাবেক নির্বাচন কমিশনার

আধুনিকতার ছোয়া লেগেছে রাজনৈতিক অঙ্গনেও, তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে এখন আর পিছিয়ে নেই কোন খাত। তেমনি সমান তালে এগিয়ে যাচ্ছে রাজনৈতিক কর্মকান্ড। আগে যেমন নির্বাচনের আগে রাতের আধারে ভোটারের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট কেনার জন্য টাকা দিয়ে আসতে হতো এখন আর তা হয় না। প্রযুক্তির বদৌলতে এখন তা পৌঁছে যায় বিকাশ কিংবা মোবাইলে ফ্লেক্সিলোড এর মাধ্যমে। ভোট কেনার ক্ষেত্রে এমনই পরিবর্তন এসেছে বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) সাখাওয়াত হোসেন।

নির্বাচন কমিশনার থাকাকালীন (২০০৮-২০১৩) রাজশাহী ও বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে অভিনব পদ্ধতিতে ভোট কেনার অভিজ্ঞতার কথা জানান তিনি। আজ সোমবার দুপুরে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপ (ইডব্লিউজি) আয়োজিত নির্বাচন সংক্রান্ত এক গোলটেবিল বৈঠকে এসব কথা বলেন সাখাওয়াত হোসেন।

২০১৩ সালে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের অভিজ্ঞতার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ভোট চলাকালীন আমাদের কাছে অভিযোগ আসলো যে, ফ্লেক্সিলোডের মাধ্যমে ভোট কেনা-কাটা হচ্ছে। নিজেরা আলোচনা করে ওই এলাকার (রাজশাহী শহরের) ফ্লেক্সিলোড বন্ধ রাখা যায় কিনা সেই চিন্তা করেছিলাম। এখন তো আরও সহজে লেনদেন সম্ভব। কারণ বিকাশ একাউন্টের মাধ্যমে ব্যক্তিগত লেনদেন করা যায়’।

একই সময়ে হওয়া বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন এলাক থেকে আসা অভিযোগের ভিত্তিতে সাবেক এই নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘আমরা যখন রাজশাহীর অভিযোগ নিয়ে আলোচনা করছিলাম ঠিক ওই সময়ে বরিশাল থেকে অভিযোগ আসলো কোন কোন প্রার্থী অনেক ভোটারের দোকানের বাকি পরিশোধ করে দিচ্ছেন’।

তিনি বলেন, ‘অনেক প্রার্থী নেতৃস্থানীয় ভোটারদের (যারা অন্য ভোটারদের ওপর প্রভাব রাখেন) ব্যংকের ঋণও পরিশোধ করে দিচ্ছেন। তখন দেখা গেল, তাৎক্ষণিকভাবে এগুলোর প্রমাণ পাওয়া যেমন সমস্যা তেমনি এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করা আরও কঠিন।’

‘তাই অনেক বিষয়ে জেনেও প্রত্যাশিত পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব হয় না’ বলে মন্তব্য করেন সাখাওয়াত হোসেন।
ভারতেও এই বিষয়টা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা হিসেবে পরিগণিত বলে জানান তিনি।

গোলটেবিল বৈঠকে ‘দ্য স্টেটস অব ইলেকশন ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইডব্লিওজি- এর পরিচালক ড. আবদুল আলিম। এতে ২০১৩ সালের পাঁচটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন, ২০১৪ সালের জাতীয় সংসদ ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচন, ২০১৫ সালের ঢাকা ও চট্টগ্রামের তিনটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের অবস্থা তুলে ধরা হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ব্যরিস্টার মনজুর হাসান, ইডব্লিওজি-এর স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহ, এশিয়া ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ হাসান এম মজুমদার প্রমুখ।

বক্তারা সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য নির্বাচনী এলাকার সীমানা নির্ধারণ, নির্বিঘ্নে ভোট প্রদান এবং ভোট পরবর্তী সময়ে সহিংসতা রোধে নির্বাচন কমিশনকে আরও শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলার প্রয়োজনীয়তার কথা ব্যক্ত করেন।

তবে, নির্বাচন কমিশনকেও দায়িত্ব নিয়ে নিজেদের ক্ষমতা প্রয়োগ করতে হবে বলে উল্লেখ করেন একাধিক বক্তা।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

ঢাকা মেডিকেলে আটক ভুয়া চিকিৎসকের বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা

ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল (ঢামেক) থেকে আটককৃত ভুয়া চিকিৎসক রিপা আক্তারেরবিস্তারিত পড়ুন

সিরাজদিখানে আ.লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

মুন্সীগঞ্জ সিরাজদিখান উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আগামী ২৩ জুন বাংলাদেশবিস্তারিত পড়ুন

ছুটি শেষে স্বস্তিতে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ, বেড়েছে ঢাকাগামী যানবাহনের চাপ

স্বজনদের সঙ্গে ঈদুল আজহার ছুটি কাটিয়ে কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছেবিস্তারিত পড়ুন

  • পাঁচ দিনেও অপসারণ হয়নি কোরবানির বর্জ্য, অস্বস্তিতে বনশ্রীবাসী
  • আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিএনপিকে দাওয়াত
  • সিলেটে বন্যার পানি কমলেও পানিবন্দি রয়েছে ১০ লাখ মানুষ
  • রাসেলস ভাইপার নিয়ে আতঙ্ক না ছড়িয়ে সচেতন হওয়ার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের
  • চাঁদপুরে যৌথ অভিযানে ১১ মণ জেলিযুক্ত চিংড়ি জব্দ
  • সুইস ব্যাংকে কমছে বাংলাদেশিদের আমানত, কী কারণ?
  • নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে নয়া দিল্লি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
  • উসকানি দিলে যুদ্ধে জড়াবো না: ওবায়দুল কাদের
  • রাজধানীতে ফিরতে শুরু করেছেন কর্মজীবীরা
  • ১৪ দিনে রেমিট্যান্স এলো ১৬৪ কোটি ডলার
  • আছাদুজ্জামান মিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতির তেমন অভিযোগ আসেনি, হলে বিচার হবে: ওবায়দুল কাদেরের
  • সিলেট বিভাগের বন্যা ভয়ঙ্কর রুপ নিচ্ছে