মঙ্গলবার, জুলাই ২৩, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

মশার কামড় থেকে পরিত্রাণ দেবে এই খাবারগুলো..!

এই মৌসুমে মশার কামড়ে প্রাণ ওষ্ঠাগত হয়ে যায়। ঘুমের ব্যাঘাত যে ঘটায় তা বলাই বাহুল্য। সন্ধ্যা পার হলেই মশা কামড়ে অতিষ্ঠ হতে হয়। আর ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া এসব রোগের ভয় তো আছেই। আজ জেনে নিন এমন কিছু খাবারের কথা যেগুলো মশার কামড় থেকে আপনাকে দূরে রাখবে, আবার মশা কামড়ালে তার জ্বলুনিও কমিয়ে আনবে।

রসুনঃ

অনেকেই শহরে মশা থেকে দূরে থাকলেও গ্রামের বাড়িতে বা বনে-বাদাড়ে বেড়াতে গিয়ে মশার শিকার হন। তারা বেড়াতে যাবার কয়েক দিন আগে থেকে কাঁচা রসুন খাওয়া শুরু করুন। প্রতিদিন ১-২ কোয়া কাঁচা রসুন খান। ঘামের সাথে রসুনের যে গন্ধ বের হবে তা মশাসহ বিভিন্ন পোকা দূরে রাখতে সক্ষম। এছাড়াও তৈরি করতে পারেন রসুনের এই পেস্ট রিপেলেন্ট।

গুঁড়ো দুধঃ

যদি মনে হয় মশার কামড়ে ত্বকের বারোটা বেজে গেছে তবে ব্যবহার করতে পারেন গুঁড়ো দুধের পেস্ট। এক ভাগ গুঁড়ো দুধ, দুই ভাগ পানি এবং এক চিমটি লবণ দিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন এবং এটা মশা বা পোকার কামড়ে প্রয়োগ করুন। দুধের এনজাইম ব্যথার উপশম করবে। সানবার্নের জ্বলুনি কমাতেও এই পেস্ট বেশ কার্যকরী।

লবণঃ

মশার কামড়ের জায়গাটা লবণপানি দিয়ে ধুয়ে নিন। এর ওপরে তেল মেখে রাখুন।

অলিভ অয়েলঃ

বৃষ্টির দিনে বাড়ির আশেপাশে পানি জমে থাকলে তাতে জন্মাতে পারে ঝাঁকে ঝাঁকে মশা। এসব পানিতে কয়েক টেবিল চামচ তেল ঢেলে দিলে এই পানিতে মশা ডিম পাড়তে পারবে না। সুযোগ পেলে এসব পানি সরিয়ে ফেলার ব্যবস্থা করুন। কফির গুঁড়োও এভাবে ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া অলিভ অয়েলের সাথে ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে ত্বকে মাখতে পারেন মশা দূরে রাখার জন্য।

পিঁয়াজঃ

শরীরের কোনো একটি বিশেষ জায়গায় যেমন পায়ের তলায় অনেকেরই বেশি মশা কামড়ায়। এই জায়গায় এক টুকরো পিঁয়াজ ঘষে নিন। এটা মশা ও অন্যান্য পোকা দূরে রাখবে।

লেবু ও কমলার খোসাঃ

পিঁয়াজের মতো একই কাজ করতে পারে টাটকা লেবু ও কমলার খোসা। এই খোসা ত্বকে ঘষে নিন। সুন্দর গন্ধের পাশাপাশি মশাও দূরে থাকবে।

অ্যাপল সাইডার ভিনেগারঃ

রসুনের মতো করেই ব্যবহার করতে পারেন অ্যাপল সাইডার ভিনেগার। বেড়াতে যাবার তিন দিন আগে থেকে ১ টেবিল চামচ করে অ্যাপল সাইডার ভিনেগার পান করা শুরু করুন। বেড়াতে গিয়েও এই কাজ অব্যহত রাখুন। এছাড়া একটি তুলোর বল সাধারণ ভিনেগারে ভিজিয়ে সেটাও ত্বকে ঘষে নিতে পারেন, মশা দূরে থাকবে।

ভ্যানিলাঃ

ভ্যানিলা এক্সট্রাক্ট ব্যবহার করা হয় বেকিং করতে গিয়ে। সবাই এই সুগন্ধি পছন্দ করেন। কিন্তু মশা মোটেই পছন্দ করে না। ১ টেবিল চামচ ভ্যানিলে এক্সট্রাক্ট এক কাপ পানিতে গুলে নিন। এরপর এই মিশ্রণ আপনার ত্বকে মেখে নিন, মশা দূরে থাকবে।

এছাড়াও মশার কামড়ের জ্বলুনি দূর করতে কাজে আসতে পারে কলা, পুদিনা পাতা এবং মধু। এর যে কোনো একটি মশার কামড়ের ওপরে ঘষে নিন, ব্যথা কমে আসবে।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

মানবদেহে আদার অনেক উপকার

আমাদের দিনে কয়েকবার রঙিন খাবার খাওয়া উচিত, কিন্তু আপনি কিবিস্তারিত পড়ুন

হোটেল ঘরে বিছানার চাদর সাদা হয় কেন ?

বেড়াতে গিয়ে হোটেলের ঘরে ঢুকে প্রথম যে বিষয়টি নজরে আসে,বিস্তারিত পড়ুন

ধনিয়া পাতার উপকারি গুণ

চিকিৎসকদের মতে, ধনে বা ধনিয়া একটি ভেষজ উদ্ভিদ যার অনেকবিস্তারিত পড়ুন

  • ওজন কমাতে যা খাওয়া যেতে পারে
  • প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় রসুন
  • আমলকি কখনো স্বাস্থ্যের জন্য ‘বিপজ্জনক’ হয়ে ওঠে
  • বাসি দই ও পান্তা ভাতের আশ্চর্যজনক উপকারিতা
  • স্বাদে ও পুষ্টিগুণে ভরপুর সবজি হলো লাউ
  • মৌসুমের সব রেকর্ড ভেঙে তাপমাত্রার পারদ উঠল ৪৩ ডিগ্রিতে
  • যেসব অঞ্চলে টানা ৩ দিন ঝড়বৃষ্টি
  • ২৪ ঘণ্টা না যেতেই ফের কমলো স্বর্ণের দাম
  • গরমে চুলের যত্ন নেবেন কীভাবে?
  • একলাফে সোনার দাম ভ‌রিতে কমলো ৩১৩৮ টাকা
  • কত দিন পর পর টুথব্রাশ বদলাবেন?
  • ত্বকের দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায়