সোমবার, মে ২০, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে হত্যা করেছে আওয়ামী লীগ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান বলেছেন, ২০১৪ সালের ভোটারবিহীন একতরফা নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকার মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে হত্যা করেছে।’

তিনি বলেন, ‘যে গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য এক সাগরের রক্তের বিনিময়ে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত করেছি, আওয়ামী লীগ বার বার সেই গণতান্ত্রিক চেতনাকে আঘাত করেছে।’

জাতীয় প্রেস ক্লাবের হলরুমে শনিবার বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দল আয়োজিত ‘রাজনৈতিক সংকট সমাধানে সকল রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণের বিকল্প নাই’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি মাহবুবুর রহমান এ সব কথা বলেন।

সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল মাহবুব বলেন, ‘শিশু থেকে শুরু করে ৮০ বছর বয়সের বৃদ্ধা পর্যন্ত ধর্ষণের শিকার হচ্ছেন। হত্যা, খুন, গুম, রাহাজানি, শিশু নির্যাতন নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর এ সংকট গণতন্ত্রের সংকট। এ সংকটের সৃষ্টি হয়েছে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে। যে নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ওপর বিরাট আঘাত করা হয়েছে।’

‘বাংলাদেশ একটি পৈশাচিক হত্যার দেশে পরিণত হয়েছে’ মন্তব্য করে মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘দেশ আজ এক চরম সংকটে পতিত হয়েছে। এই সংকট গণতন্ত্রের। এ সংকট থেকে বের হওয়ার জন্য অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন দরকার, যেখানে সব দলের অংশগ্রহণ থাকবে। এর বাইরে গোঁজামিলের রাজনীতির সুযোগ নেই।’

২০ দলীয় জোটের শরিক জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সভাপতি শফিউল আলম প্রধান বলেন, ‘আওয়ামী লীগের কাছে গণতন্ত্র, মানবাধিকার, স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব কিছুই নিরাপদ নয়। আমরা কে কি করলাম এটি বিষয় নয়, ইতিহাসের ধারাবাহিকতার অনিবার্য পরিণতি থেকে স্বৈরশাসক আওয়ামী লীগের মুক্তি নাই। জনরোষের মুখে গণআন্দোলনের মধ্য দিয়েই ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত স্বৈরাচারের পতন হবে।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এ্যাডভোকেট আহমদ আজম খান বলেন, ‘সরকারের গণবিরোধী অবস্থান ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করার অপরাজনীতি বাংলাদেশের জন্য অভিশাপ বয়ে আনছে। এ অবস্থা থেকে দ্রত উত্তরণে সকল দলের অংশগ্রহণে অবাধ-সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ নির্বাচনের কোনো বিকল্প নাই। আগামী বাংলাদেশে একটি দেশপ্রেমিক সরকার প্রতিষ্ঠায় জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।’

২০ দলের আরেক শরিক বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, ‘রক্ত দিয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এ গণতন্ত্রের প্রশ্নে কোনো আপস চলবে না। বহুদলীয় গণতন্ত্রের জন্যই স্বাধীনতার সংগ্রাম। সুতরাং স্বাধীনতা আর মুক্তিযুদ্ধের চেতনা জনগণের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় সংগ্রামের কোনো বিকল্প নাই।’

সাংস্কৃতিক দলের সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবির বেপারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিএনপি সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, কৃষক দলের যুগ্ম-সম্পাদক শাহজাহান মিয়া সম্রাট, সাবেক ছাত্রনেতা বাবু সুরঞ্জন ঘোষ, সাংস্কৃতিক দলের এ্যাডভোকেট কানন খান, মো. ইউনুস, মন্টু খান, আবু হানিফ, সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

দেশটা এখন মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে : মির্জা ফখরুল  

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলটির আন্তর্জাতিক সম্পর্কবিষয়ক কমিটিরবিস্তারিত পড়ুন

আওয়ামী লীগ ক্ষমতা দখল করে আরও হিংস্র হয়ে উঠেছে

আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী ‘ডামি’ নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে আরও হিংস্রবিস্তারিত পড়ুন

চড়াই-উতরাই থাকবে হতাশ হবেন না: প্রধানমন্ত্রী

দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন,বিস্তারিত পড়ুন

  • শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ
  • দেশের জনগণ পানির ন্যায্য হিস্যা থেকে বঞ্চিত : মির্জা ফখরুল
  • আওয়ামী লী‌গ ভিসানীতির পরোয়া করে না : ওবায়দুল কাদের
  • কমরেড রনো চির জাগরূক থাকবেন
  • বিএনপি আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা 
  • মোহাম্মদপুরের গজনবী রোডে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের ‘শান্তি ও উন্নয়ন’ সমাবেশ
  • উপজেলা নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে জনগণ: রিজভী
  • আহসানউল্লাহ মাস্টার হত্যা স্বাধীনতা বিরোধীদের নীলনকশার অংশ : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী
  • বিএনপি নেতাকর্মীরা বগুড়ায় আ.লীগ নেতার নির্বাচনী প্রচারণায়
  • পবিত্র ওমরাহ পালনে সৌদি আরব গেছেন মির্জা ফখরুল
  • ড. ইউনূসসহ ১৪ জনের জামিন 
  • সব পন্থি সরকারের হাত থেকে মুক্তি চায়: ফখরুল