শুক্রবার, মে ২৪, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

যুক্তরাষ্ট্রের জিএসপি সুবিধা চালু বাদ পড়লো বাংলাদেশ

মার্কিন বাজারে নতুন করে জিএসপি সুবিধা চালু হলেও বাংলাদেশকে এ সুবিধা না দেয়ার বিষয়টিকে নেতিবাচক ভাবেই দেখছেন দেশের কূটনীতিকরা। তবে জিএসপি না পাওয়ায় টাকার অংকে বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্যে খুব বেশি প্রভাব না পড়লেও অর্থনীতিবিদদের মতে, বিশেষ কিছু ক্ষুদ্র শিল্প বিপাকে পড়বে। আর প্রতিযোগী দেশগুলোর জিএসপি সুবিধা পুনর্বহাল হওয়ায় ব্যবসায়ীরা মনে করছেন বিপাকে পড়বে প্লাস্টিক ও পাটজাত পণ্যের বাজার।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে সব দেশের ক্ষেত্রে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিশেষ বাণিজ্য সুবিধা-জিএসপি স্থগিতের পর চলতি বছরের ২৯ জুলাই থেকে তা আবারো চালু করে। তবে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকাসহ ১শ’ ২২টি দেশ সুবিধাটি ফিরে পেলেও, জিএসপি তালিকায় স্থান পায়নি বাংলাদেশ ও রাশিয়া। এমন অবস্থায় কূটনীতিকরা বলছেন, তৃতীয় বিশ্বের দেশ হিসেবে জিএসপি বাংলাদেশের অধিকার।

সাবেক কূটনীতিক আশফাকুর রহমান বলেন, ‘বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক থাকা সত্ত্বেও যুক্তরাষ্ট্রের জিএসপি সুবিধা না দেয়াটা উচিত হয়ন গত অর্থবছরে বাংলাদেশ মার্কিন বাজারে রপ্তানি করেছে প্রায় সাড়ে ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্য। এক্ষেত্রে জিএসপি সুবিধা বহির্ভূত তৈরি পোশাক খাতের অবদান সবচেয়ে বেশি। আর জিএসপি না পাওয়ায় বিপাকে পড়েছে প্লাস্টিক, চামড়া, পাটজাত পণ্য, হিমায়িত খাদ্যপণ্যের মত রপ্তানিখাত।

বাংলাদেশ জুট গুডস এসোসিয়েশনের ভাইস-চেয়ারম্যান এস আহমেদ মজুমদার জানান, ‘প্রতিযোগিতাপূর্ণ বাজারে সবাই চাচ্ছে জিএসপি সুবিধা পেতে। এতে করে পাটের পণ্য নিয়ে যারা ব্যবসা করছেন সবার মাঝেই জিএসপি সুবিধা পাওয়ার আকাঙ্ক্ষা।’

অর্থনীতিবিদদের মতে, জিএসপি সুবিধা না পাওয়ায় আর্থিক ক্ষতির চেয়ে আন্তর্জাতিক বাজার সম্প্রসারণ হবে বড় চ্যালেঞ্জ ।আর তাই জিএসপি ফিরে পেতে সরকারের প্রতি জোরালো কূটনৈতিক যোগাযোগের পরামর্শ তাদের।

অর্থনীতিবিদ ড. খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম বলেন, ‘রানা প্লাজা ধসের ঘটনায় জিএসপি সুবিধা বাতিল করেছিল যুক্তরাষ্ট্র। এরপর জিএসপি পুনরুদ্ধারের জন্য ১৬টি পূর্বশর্ত দেয়া হয়েছিল। কিন্তু জিএসপি সুবিধা ফিরে পেতে এসব পূর্বশর্ত পূরণে সরকারকে কাজ করতে হবে।’

শ্রম অধিকারের পক্ষে নিজেদের শুধু জাহির না করে জিএসপি ফিরিয়ে দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের উচিত বাংলাদেশের প্রাপ্য নিশ্চিত করা, এমন অভিমত ব্যবসায়ী এবং পর্যবেক্ষকদের।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

তৃতীয়বার আনারকে মনোনয়ন দিয়েছি জনপ্রিয়তা দেখে: কাদের

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম (আনার) স্বর্ণ চোরাচালানকারীবিস্তারিত পড়ুন

প্রবাসে ও দেশে কর্মীদের সুরক্ষিত রাখতে কাজ করছে সরকার : প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী

অভিবাসী কর্মীদের প্রবাসে এবং প্রত্যাবাসন পরবর্তীতে দেশে সুরক্ষিত জীবন মানবিস্তারিত পড়ুন

সাংবাদিকদের নিয়ন্ত্রণ করার আমি পক্ষপাতী নই : স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামবিস্তারিত পড়ুন

  • ডিসি-ইউএনওর জন্য ২৬১ গাড়ি কেনা হচ্ছে
  • দেওয়ানগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যান হলেন তৃতীয় লিঙ্গের মুন্নি
  • এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে ঋণ বিতরণ বেড়েছে ৪১ শতাংশ
  • ১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস লক্ষ্য পূরণে ব্যর্থ হলে বিশ্বের পরিণতি হবে ভয়াবহ – পরিবেশমন্ত্রী
  • উপজেলা নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপে চেয়ারম্যান পদে যারা বিজয়ী
  • শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ইনোভেশন শোকেসিং অনুষ্ঠিত
  • ডেসকোর প্রিপেইড রিচার্জ সেবা বিঘ্নিত হবে ২ দিন
  • এমপির বোন জামাই ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের ছেলের জয়
  • শফিউল আজিমকে পদোন্নতি দিয়ে ই সি সচিব করা হলো
  • বাজেট অধিবেশন শুরু ৫ জুন
  • ‘মুক্ত বিনিয়োগ নীতি গ্ৰহনে পাচারকৃত অর্থ ফেরানোর সুযোগ রয়েছে’
  • দ্বিতীয় ধাপে ১৫৬ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে