মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

যে ধারায় ফিরছে ছাত্রলীগ

হাবীব রহমান ও কামরুল ইসলাম : বিতর্কিত কর্মকাণ্ড পরিহার করে পজেটিভ ধারায় ফিরছে ছাত্রলীগ। কেন্দ্রীয় কমিটির কড়া নজরদারির মধ্যেও কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটছে। খোঁজ নিয়ে দেখা যায় এর দায়ভার স্থানীয় এমপি কিংবা আওয়ামী লীগ নেতাদের। অন্যান্য জেলার জন্য অনুসরণীয় হতে পারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কর্মকাণ্ড। দীর্ঘদিন ধরে অচল থাকা ডাকসুর ভূমিকা পালন করতে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে গতকাল স্মারকলিপি দিয়েছে তারা।

এর আগের দুই দিন ক্যাম্পাস থেকে সরিয়ে দিয়েছে ব্যক্তিগত ব্যানার। যাতে ঢাকা পড়েছিল ঢাবির সৌন্দর্য। আর গত শনিবার বিলুপ্ত ছিটমহলে ৫০ হাজার বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করে কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সমালোচকদের একটা বড় জবাবই দিয়ে দিলেন। এর আগে ক্লিন ক্যাম্পাস-সেফ ক্যাম্পাস কর্মসূচি পালন করেও সবার দৃষ্টি কেড়েছিল ছাত্রলীগ।

ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগ প্রতিবেদককে বলেন, নিঃসন্দেহে এসব কর্মকাণ্ড ছাত্রলীগের ভাবমূর্তিকে আরো উজ্জ্বল করবে। ছাত্রলীগকে শিক্ষার্থীবান্ধব আরো কর্মসূচি নিতে হবে। আমার বিশ্বাস নতুন কমিটির নিশ্চয়ই এমন অনেক ব্যতিক্রমী কর্মসূচি রয়েছে। বিশ্বায়নের এ যুগে নতুন কমিটির কাছে আমাদের প্রত্যাশা অনেক। এবং আমার বিশ্বাস ছাত্রলীগের নতুন নেতৃত্ব ছাত্রদের স্বার্থে কাজ করবে।

গতকাল দুপুরে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের কাছে সাধারণ ছাত্রদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ১৯ দফা দাবি পেশ করলে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকও সংগঠনের নেতাদের এ উদ্যোগের প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, এটি একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। শিক্ষক এবং ছাত্র সমাজের সঙ্গে ছাত্র সংগঠন দায়িত্বশীল আচরণ করবে এবং ছাত্রদের স্বার্থ সংরক্ষণে কাজ করবে এটা ইতিবাচক কার্যক্রম। এ ধরনের উদ্যোগ ছাত্র সংগঠনগুলোর ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করবে, একই সঙ্গে নিজেদের সংগঠনের মর্যাদাও বৃদ্ধি পাবে।

চলতি বছরের জুলাই মাসের শেষের দিকে ছাত্রলীগের ২৮তম জাতীয় সম্মেলনে নতুন কমিটি নির্বাচিত হয়। কমিটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ এবং সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন শুরু থেকে যে কোনো অপরাধের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স দেখানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। সাংবাদিক মারধরের ঘটনায় ঢাকা কলেজের কয়েক ছাত্রলীগ কর্মীকে নিজেরা উপস্থিত থেকে পুলিশে সোপর্দ করেছেন।

সংগঠনবিরোধী আচরণের কারণে সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত রাখা হয়েছে। বিলুপ্ত করা হয়েছে ছাত্রলীগের ময়মনসিংহ জেলা ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও চাঁদপুরের শাহরাস্তি থানা কমিটি। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ছাত্রলীগ সভাপতি সকালেই খোঁজ নেন সারাদেশের ছাত্রলীগ নিয়ে কোনো দৈনিকে কোনো খবর প্রকাশিত হয়েছে কিনা। তারপর সংশ্লিষ্ট ইউনিট প্রধান কখনো উপজেলা কিংবা ইউনিয়ন পর্যায়ে ফোন দিয়েও প্রকৃত ঘটনা শুনে ব্যবস্থা নেন।

ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ এই প্রতিবেদককে বলেন, সংগঠনবিরোধী কোনো কর্মকাণ্ড কখনোই বরদাশত করা হবে না। ছাত্রলীগ করতে হলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ মানতে এবং প্রধানমন্ত্রীর ভিশন বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে। বিতর্কিত কাউকে ছাত্রলীগে জায়গা দেয়া হবে না।

সংবাদ সম্মেলনে উত্থাপিত দাবি: সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে উত্থাপিত ছাত্রলীগের দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলের ক্যান্টিনে মানসম্মত খাবার পরিবেশন ও খাবারের মান অনুযায়ী যথাযথ মূল্য নির্ধারণ করা; বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেক বিভাগের শ্রেণী কক্ষগুলোতে শিক্ষা সরঞ্জাম, ডিজিটাল বোর্ড স্থাপন, প্রজেক্টর ও কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন, সুপেয় পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন করা; বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেক শিক্ষার্থীর হাতে স্বল্পমূল্যে এবং সহজ কিস্তিতে ল্যাপটপ প্রদানের সুবিধা নিশ্চিত করা; প্রত্যেক ল্যাবরেটরিতে সর্বাধুনিক সরঞ্জাম ও প্রযুক্তি সরবরাহ ও স্থাপনের মাধ্যমে শিক্ষার মান উন্নয়ন করা; ঢাবি ক্যাম্পাসকে মাদকমুক্ত করার লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় নিয়মিত অভিযান পরিচালনা ও শাস্তির ব্যবস্থা করা; বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিষ্কার-পরিচ্ছনতার অংশ হিসেবে বিভিন্ন মোড় ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ডাস্টবিন স্থাপন ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে সচেতনতামূলক বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা।

প্রত্যেক আবাসিক হলের পারিপার্শিক পরিবেশ উন্নয়নে নিয়মিত মশা ও ছারপোকা নিধন ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থার যথাযথ উন্নয়ন করা; বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস ও প্রতিটি আবাসিক হলকে ওয়াইফাই জোনের আওতাভুক্ত করা; ঢাবির প্রতিটি গ্রন্থাগারকে আধুনিকীকরণ করা ও যুগোপযোগী পাঠ্যবই, মুক্তিযুদ্ধের ওপর রচিত বইয়ের সংগ্রহ বৃদ্ধি করা। ঢাবির সব শিক্ষার্থীর শারীরিক ও মানসিক বিকাশের জন্য খেলার মাঠ নিয়মিত পরিচর্যা করা ও মাঠগুলোকে ভাড়া প্রদান বন্ধ নিশ্চিত করা এবং বিভিন্ন সময়ে খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের আয়োজন করা। আবাসিক হলগুলোর শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় সিসিটিভি সংযুক্ত করা; ইভটিজিং প্রতিরোধে যৌন নিপীড়নবিরোধী সেলের ভূমিকা ত্বরান্বিত করা; পুরনো হলগুলো অতিদ্রুত সংস্কার করে সাধারণ শিক্ষার্থীদের বসবাসের উপযোগী করে তোলা ইত্যাদি।

এর আগে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন, ঢাবি শাখার সভাপতি আবিদ আল হাসান, সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্সসহ বিভিন্ন হল ইউনিটের নেতারা।-মানবকণ্ঠ

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটিতে রদবদল

বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটিতে বড় ধরনের রদবদল হয়েছে, জাতীয় কাউন্সিলবিস্তারিত পড়ুন

বিএনপির টপ টু বটম দুর্নীতিতে জড়িত: কাদের

‘বিএনপি টপ টু বটম সবাই দুর্নীতিবাজ বলেছেন,  আওয়ামী লীগ সাধারণবিস্তারিত পড়ুন

চার্জ গঠন বাতিল চেয়ে রিট করবেন ড. ইউনূস

 শ্রমিক-কর্মচারীদের লভ্যাংশ আত্মসাতের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ ড.বিস্তারিত পড়ুন

  • চার্জ গঠন বাতিল চেয়ে রিট করবেন ড. ইউনূস
  • আদালতে লোহার খাঁচায় থাকা অপমানজনক: ড. ইউনূস
  • বাংলাদেশের জনগণের প্রত্যাশাকে মর্যাদা দেবে ভারতের নতুন সরকার : ফখরুল 
  • ৫৩ বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ ১০৬ জনকে সম্মাননা দিল ‘আমরা একাত্তর’
  • আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে সর্বশক্তি নিয়োগ করেছেন বেনজীর : মির্জা ফখরুল
  • সফলতা না আসা পর্যন্ত বিএনপির লড়াই চলবে: ফখরুল
  • সফলতা না আসা পর্যন্ত বিএনপির লড়াই চলবে: ফখরুল
  • বিএনপির কর্মসূচি দমনে বেনজীর-আজিজ পুরস্কৃত হন: রিজভী
  • শেখ হাসিনার সরকার টেকসই উন্নয়নে বিশ্বাস করে
  • এমপি আনারের মূল হত্যাকারী আমানুল্লাই চরমপন্থি শিমুল ভূঁইয়া
  • ড. ইউনূসের জামিনের ৪ জুলাই পর্যন্ত মেয়াদ বাড়লো
  • সংসদ সদস্য নয়নের বিরুদ্ধে বক্তব্য ছিল কুরুচিপূর্ণ: বাক্কি বিল্লাহ