রবিবার, এপ্রিল ১৪, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

সরকারের উদ্যোগ আশরাফকে সরিয়ে দেয়ায়

মন্ত্রিসভার বিতর্কিত ও দুর্নীতিবাজ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে সৎ ও মেধাবী রাজনীতিক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে ‘দফতরবিহীন’ মন্ত্রী করায় জনগণের প্রত্যাশা পূরণ হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। তারা বলছেন, যার বিরুদ্ধে দুর্নীতির কোনো অভিযোগ নেই, যিনি সজ্জন হিসেবে সব মহলের কাছে সমাদৃত, তাকে সরানো হল কর্তব্য কাজের গাফিলতির অভিযোগে। এ উদ্যোগে সরকারের ভাবমূর্তি বৃদ্ধি পায়নি।

বরং যারা গম কেলেংকারির দায়ে অভিযুক্ত, দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত এবং নানাভাবে সমালোচিত ও বিতর্কিত, যারা সরকারকে বারবার বিব্রত করেছে, বেকায়দায় ফেলেছে, তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় জনগণ হতাশ ও ক্ষুব্ধ হয়েছেন। বিভিন্ন মহলের দাবি সত্ত্বেও দুর্নীতিবাজ হিসেবে পরিচিতদের স্বপদে বহাল রাখায় সরকারের সদিচ্ছা নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

শনিবার এ বিষয়ে টেলিফোনে দেশের বিশিষ্ট কলামিস্ট, শিক্ষক, রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ও বুদ্ধিজীবীদের মতামত জানতে চাওয়া হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি (উপাচার্য) ও রাষ্ট্র বিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ, লেখক-কলামিস্ট ও বুদ্ধিজীবী সৈয়দ আবুল মকসুদ, ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান এবং সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী মনে করেছেন বলেই সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে দফতর থেকে সরিয়ে দিয়েছেন। তাজউদ্দীন আহমদের সন্তানের মতো সৈয়দ নজরুল ইসলামের সন্তানের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটল জানিয়ে তিনি বলেন, আশরাফকে সরানোর আগে আমরা আশা করেছিলোম দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত এবং বিতর্কিত মন্ত্রীদের প্রধানমন্ত্রী অপসারণ করবেন। এ ঘটনায় সরকারের ভাবমূর্তি বাড়েনি মন্তব্য করে তিনি বলেন, এ সিদ্ধান্তে সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা অপূর্ণই থেকে গেছে।

সাধারণ মানুষ বহু মন্ত্রীর কার্যকলাপে অসন্তুষ্ট উল্লেখ করে সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, মানুষের প্রত্যাশা যেসব মন্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির দৃষ্টিগ্রাহ্য প্রমাণ আছে এবং তাদের মতে যারা সরকারে ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করছে তাদের বাদ দিয়ে সরকারের পুনর্গঠন হওয়া উচিত। এটা যেমন জনগণের প্রত্যাশিত, তেমনি সরকারের জন্যও ভালো হবে। সংসদীয় গণতন্ত্রে মাঝে মাঝে মন্ত্রিসভা পুনর্গঠন স্বাভাবিক প্রক্রিয়া মন্তব্য করে এ লেখক বলেন, মন্ত্রীদের দক্ষতা-যোগ্যতা বিবেচনা করেই যোগ-বিয়োগ করাটা রীতি। কিন্তু সৈয়দ আশরাফকে সরানো এবং যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে তাদের রেখে রদবদলে সরকারের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হওয়ার সুযোগ নেই। বরং সমালোচনা বেড়েছে।

অবশ্য তাদের সঙ্গে কিছুটা দ্বিমত পোষণ করেছেন টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। তিনি বলেন, অভিযুক্তদের সরানো এবং সৈয়দ আশরাফকে দফতরবিহীন করা দুটি আলাদা বিষয়। কেননা যাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এবং যারা বিতর্কিত তাদের সম্পর্কে ব্যবস্থা নেয়ার এখন পর্যন্ত কোনো আইনগত ভিত্তি নেই। এক্ষেত্রে নৈতিক অবস্থান থেকে তাদের নিজেদেরই সরে যাওয়া উচিত। কিন্তু বাংলাদেশে এখনও সেই রাজনৈতিক সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠিত হয়নি। হয় তো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও মনে করছেন, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আইনগত ভিত্তি তৈরি হয়নি। আর সৈয়দ আশরাফের ক্ষেত্রে বিষয়টি অন্যরকম। কেননা তার ওপর অর্পিত দায়িত্ব তিনি যথাযথভাবে পালন করেননি বলে অভিযোগ ছিল। সেক্ষেত্রে তার দায়িত্বের প্রতি অবহেলা ছিল বলে মনে করা হয়। হয় তো সেজন্যই তাকে সরানো হয়েছে।

অবশ্য তার সঙ্গে একমত নন সুজন সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার। তিনি বলেন, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম মন্ত্রণালয়ে কর্মতৎপরতা না দেখালেও তার সততা নিয়ে প্রশ্ন নেই, তিনি যে কোনো ধরনের দুর্নীতির ঊর্ধ্বে, এটা সর্বজনীন। বাংলাদেশের রাজনীতিতে খারাপ লোকেরা ভালো লোকদের রাজনীতি থেকে বিতাড়িত করার যে সংস্কৃতি এখানেও তাই ঘটেছে। এই সিদ্ধান্তে সরকারের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে না। এ পদক্ষেপে জনপ্রত্যাশাও পূরণ হয়নি। তিনি বলেন, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে জনআকাক্সক্ষা পূরণ হতো, জনস্বার্থও রক্ষিত হতো।

ব্রাজিল থেকে পচা গম আমদানি করায় গত ১ মাস ধরে সারা দেশে তুলকালাম ঘটে গেছে। এজন্য বিভিন্ন মহল থেকে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলামকে অপসারণের জোরালো দাবি উঠেছে। এদিকে দুর্নীতির একটি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার মন্ত্রিত্ব নিয়ে সাংবিধানিক জটিলতা দেখা দিয়েছে। এর আগে নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনায় নিজের জামাতা তারেক মোহাম্মদ সাঈদের সম্পৃক্ততা এবং তাকে রক্ষায় সরকারের ওপর মহলে দেনদরবারের জন্য চরম সমালোচিত হন তিনি।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

শ্রমিক অধিকার নিয়ে নালিশের নিষ্পত্তি নভেম্বরে: আইনমন্ত্রী 

আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছেন, আগামী নভেম্বরেবিস্তারিত পড়ুন

বিএনপির কেন্দ্রীয় ৩ নেতার পদোন্নতি

বিএনপিতে কেন্দ্রীয় কমিটির ৩ নেতার পদে রদবদল করা হয়েছে। মঙ্গলবারবিস্তারিত পড়ুন

বিএনপি মানে খাইখাই, আ.লীগ মানেই দেই-দেই: প্রধানমন্ত্রী

বিএনপি গণতন্ত্রের ভাষা বোঝে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগবিস্তারিত পড়ুন

  • ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি, তাড়াহুড়োয় ভুল হয়ে গেছে: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী
  • হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরলেন খালেদা জিয়া
  • গুরুতর আহত মমতা, হাসপাতালে ভর্তি
  • সুপ্রিম কোর্টে মারামারি ঘটনায় ৩ সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল বরখাস্ত
  • কোস্ট গার্ডকে ত্রিমাত্রিক বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলা হবে: প্রধানমন্ত্রী
  • সুপ্রিম কোর্ট নির্বাচন: হট্টগোল-মারামারিতে ভোট গণনা বন্ধ
  • সত্যকে কখনও মিথ্যা দিয়ে ঢাকা যায় না: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘নিরাপত্তা নিশ্চিতে অন্যদের নিষেধাজ্ঞা গ্রহণযোগ্য নয়’
  • ঐক্যফ্রন্টের লিয়াজোঁ ও স্টিয়ারিং কমিটিতে আছেন যারা
  • লুটেপুটে খায় এমন প্রার্থীদের বর্জন করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির
  • ‘দুষ্টের দমন ও শিষ্টের পালনের জন্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন’
  • ডায়াবেটিস ও ব্যথায় ভুগছেন খালেদা জিয়া