রবিবার, জুলাই ১৪, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

২১-২২ জুন ভারত সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

আগামী ২১ ও ২২ জুন দ্বিপক্ষীয় সফরে চলতি মাসেই ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই সফরকালে তিস্তাসহ দুই দেশের মধ্যে প্রবাহিত অভিন্ন নদীর পানি ভাগাভাগিসহ গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আলোচনা করবেন।

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব নাঈমুল ইসলাম খান প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের কথা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেছেন, আগামী ২১ ও ২২ জুন প্রধানমন্ত্রীর এই দ্বিপক্ষীয় সফরটি অনুষ্ঠিত হবে।

ঢাকা ও দিল্লির কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, ভারতের লোকসভা নির্বাচনের বিষয়টি বিবেচনায় রেখে চলতি জুনের তৃতীয় সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী দ্বিপক্ষীয় সফরে দিল্লি যাবেন- এমনটা কূটনৈতিক চ্যানেলে আগেই মোটামুটি স্থির ছিল। সফরের খুঁটিনাটি ঠিক করতে ভারতের পররাষ্ট্রসচিব বিনয় মোহন কোয়াত্রা ইতিমধ্যে দু’বার ঢাকা ঘুরে গেছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরসূচি অনুযায়ী ২১ জুন ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি পৌঁছাবেন তিনি। পরদিন ২২ জুন টানা তৃতীয়বারের প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে শীর্ষ বৈঠকে বসবেন। সেদিনই দেশে ফেরার কথা রয়েছে তার।

সূত্র জানায়, শেখ হাসিনার সফরে তিস্তাসহ দুই দেশের মধ্যে প্রবাহিত অভিনœ নদীর পানি ভাগাভাগি বিষয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হবে। এছাড়া রেল, সড়ক ও নৌপথে আঞ্চলিক সংযুক্তির কার্যকর প্রসার এবং বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে সহযোগিতা ও দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যের নানা দিক নিয়ে দুই নেতার মধ্যে আলোচনা হতে পারে।

চলতি মাসেই এটি হবে প্রধানমন্ত্রীর দ্বিতীয় দফা ভারত সফর। এর আগে ৮ থেকে ১০ জুন ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) নেতৃত্বাধীন এনডিআই সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদির শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ভারত সফর করেন শেখ হাসিনা। দ্বিপক্ষীয় সফর না হলেও ওই সফরে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে শেখ হাসিনার বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

ছাত্রপক্ষের ঢাবি শাখার আহ্বায়ক জিহাদ, সদস্যসচিব হাসিব

খালিদ সাইফুল্লাহ জিহাদকে আহ্বায়ক এবং জুবায়ের হাসিবকে সদস্যসচিব করে বাংলাদেশবিস্তারিত পড়ুন

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে খুবিতে বিক্ষোভ

সংসদে আইন পাশ করে কোটা সংস্কারের দাবি ও বিভিন্ন ক্যাম্পাসে কোটা আন্দোলনের সময় শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার বিকাল ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের হাদী চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি বের করা হয়। মিছিলটি আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু একাডেমিক ভবন, কেন্দ্রীয় মন্দির, অপরাজিতা ছাত্রী হল, কেন্দ্রীয় গবেষণাগার, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার, আবাসিক ছাত্র হল, শহিদ তাজ উদ্দিন আহমেদ প্রশাসন ভবনসহ বিভিন্ন ভবনের সামনে দিয়ে পুরো ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের পুলিশ ফাঁড়ির সামনে দিয়ে প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান নেয়। তবে শিক্ষার্থীরা সড়কের একপাশে অবরোধ করায় যান চলাচল স্বাভাবিক ছিল। বিক্ষোভে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। শিক্ষার্থীরা বলেন, বৈষম্যমূলক কোটা ব্যবস্থার বিরুদ্ধে কথা বলায় বিভিন্ন ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের লাঠিচার্জ করে আহত করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের গায়ে কেন হাত দেওয়া হলো প্রশাসনকে এর জবাব দিতে হবে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত পুলিশ দিয়ে হামলা করে ছাত্র সমাজকে দমানো যাবে না।

ভারি বৃষ্টির আভাস ৪ বিভাগে, বাড়তে পারে তাপমাত্রা

দেশের চার বিভাগে ভারি এবং চার বিভাগে হালকা বৃষ্টি হতেবিস্তারিত পড়ুন

  • সরকারের জিম্মি থেকে দেশ ও জনগণ মুক্তি চায়: রাশেদ প্রধান
  • সতর্কবার্তা যাচ্ছে কোটা আন্দোলনে
  • পাকিস্তানের সংসদে পিটিআইকে সংরক্ষিত আসন দিতে আদালতের নির্দেশ
  • তিন দিন পর সারাদেশে গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক
  • বাংলা ব্লকেডে শিক্ষার্থীরা, ‘কঠোর’ পুলিশ, মাঠে ছাত্রলীগও
  • ছাগলকাণ্ড: মতিউর পরিবারের আরও ১১৬টি ব্যাংক হিসাব, জমি-ফ্ল্যাট জব্দের নির্দেশ
  • খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য দরকার রাজনৈতিক দাওয়াই: মির্জা আব্বাস
  • পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে শাহবাগে শিক্ষার্থীরা, পিছু হটল রায়ট কার
  • কোটা আন্দোলন: মেট্রোরেলের শাহবাগ স্টেশন বন্ধ
  • আসামিসহ প্রিজন ভ্যান আটকে দিলো আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা
  • কোটা আন্দোলন: শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরার আহ্বান প্রধান বিচারপতির
  • দশম দিনে গড়াল ঢাবি শিক্ষকদের কর্মবিরতি