শনিবার, জুলাই ১৩, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

চিলির নায়ক এখন গাড়ি ধোয়া সেই ছেলেটি

তোকোপিয়া উত্তর চিলির ছোট্ট শহর। দুই বছর আগেও এই শহরের একটি রাস্তার নাম ছিল কুয়ার্তো পনিয়েন্তে। কিন্তু এখন তার নাম আলেক্সিস সানচেজ সরণি। চিলি ফুটবলের মহাতারকা সানজেচ ওই শহরের রাস্তায় বাল্যকালে ফুটবল শুরু করেছেন বলে নাম পরিবর্তন করেছেন স্থানীরা। সেই রাস্তায় গত দুই দিন ধরে চলছে টানা উৎসব। আতশবাজি আর রংয়ে একাকার।

৯৯ বছরের আক্ষেপ কাটিয়ে চিলিকে প্রথমবারের মতো কোপা আমেরিকার শিরোপা জেতাতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছে তাদের শহরের এক ছেলে। আর্জেন্টিনাকে টাইব্রেকারে হারাতে শেষ গোলটি করেন আলেক্সিস সানচেজ। জয়সূচক গোলটি করে তার জার্সি খুলে মাঠজুড়ে দৌড়ানোর দৃশ্যটিই এখন চিলির উৎসবের প্রতীক। অথচ এই সানচেজের বাল্যকাল কেমন ছিল? একবারে সাধারণ। নুন আনতে পান্তা ফুরোয় এমন এক গরিব পরিবাবে তার জন্ম। তোকোপিয়ার একটি স্কুলে পড়তেন সানচেজ। তার মা ওই স্কুলেরই আসবাব পরিষ্কারের কাজ করতেন। স্কুলে গিয়ে কর্মরত মাকে দেখলে কষ্ট পেতেন তিনি।

স্কুলে মায়ের সামনা-সামনি হতে লজ্জা পেতেন কিশোর সানচেজ। গত বছর সানচেজ বলেন, মার স্কুলে আসবাব পরিষ্কার করার কাজ একদম মেনে নিতে পারতাম না। স্কুল চলাকালে মাকে দেখামাত্রই আমি লুকিয়ে পড়তাম। যাতে মা আমকে দেখতে না পান। তবে সেই মাই আমার জীবনের আদর্শ। আমি তার কাছ থেকে শিখেছি, কিভাবে লড়াই করতে হয়। বাবার কথা মনেই নেই তার। তবে ছোট্ট সানচেজ তখন কী করতেন?

মায়ের সামান্য আয়ে তাদের সংসারে টানাপড়েন। সানচেজ নিজেই রাস্তায় বেরিয়ে পড়তেন। গাড়ি ধোয়ার কাজ করতেন তিনি। মায়ের স্কুল পরিষ্কার আর সানচেজের গাড়ি ধোয়ার টাকায় চলতো তাদের সংসার। তবে ওই স্কুলে পড়ার সময় তার জীবনে একজন ঈশ্বর হয়ে আসেন। খুয়ান সেগোভিয়া নামের ওই শিক্ষকের চোখে সানচেজের ফুটবল প্রতিভা ধরা পড়ে। তিনিই তার শিক্ষক ও প্রথম ফুটবল কোচ।

১৬ বছর বয়সে তোকোপিয়া থেকে ১০০ মাইল দূরে কালামা শহরে ফুটবলের জন্য পাড়ি জমান সানচেজ। এর পুরো উদ্যোগ ছিল ওই শিক্ষকের। এরপর তো ইতিহাস। আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। উদিনেস, রিভার প্লেট, বার্সেলোনা হয়ে এখন তিনি ইংলিশ ক্লাব আর্সেনালে। আর দেশকে প্রথমবারের মতো কোপা আমেরিকার শিরোপা জেতানো গোলটি তার পা থেকেই আসে। এবার কোপা আমেরিকার শিরোপা জয়ে গত বছর ব্রাজিল বিশ্বকাপে হারের অবদান আছে বলে মনে মনে সানচেজ। বলেন, গত বছর বিশ্বকাপে ব্রাজিলের কাছে টাইব্রেকারে হেরে যাওয়ার পরই শপথ করেছিলাম, আমরা কোপা আমেরিকা জিতবো। বিশ্বকাপে হারের যন্ত্রণা এক বছর পুষে রেখেছিলাম বলেই আজ আমাদের এই শিরোপা।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

মুস্তাফিজের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ওয়াসিম আকরাম

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে দুর্দান্ত বোলার মুস্তাফিজুর রহমান। কাটার, স্লোয়ারে প্রতিপক্ষের ব্যাটারদেরবিস্তারিত পড়ুন

দিয়াগো কস্তার বীরত্বে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল পর্তুগাল

অতিরিক্ত সময়ে পেনাল্টি পেয়েও ব্যর্থ হন দলের সেরা তারকা ক্রিস্তিয়ানোবিস্তারিত পড়ুন

শান্তর অধিনায়কত্ব নিয়ে বিসিবি যা ভাবছে

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে সব ফরম্যাটের জন্য বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব পানবিস্তারিত পড়ুন

  • চিলিকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা
  • প্রথমবার বিশ্বকাপের ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকা
  • অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে সেমিতে আফগানিস্তান
  • সেমিফাইনাল নিশ্চিতের মিশনে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে ইংল্যান্ড
  • আবারও বৃষ্টিতে বন্ধ বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ
  • বৃষ্টির পর অস্ট্রেলিয়া শিবিরে রিশাদের জোড়া আঘাত
  • টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ছক্কা হাঁকানোর তালিকায় সেরা দশে হৃদয়
  • টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইটএ বাংলাদেশের ম্যাচ
  • আফগানিস্তানকে বিশাল ব্যবধানে হারালো ওয়েষ্ট ইন্ডিজ
  • নেপালকে হারিয়ে সুপার এইটে বাংলাদেশ
  • অস্ট্রেলিয়ার জয়ে ইংল্যান্ড সুপার এইটে
  • বিশ্বকাপে একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে যে রেকর্ড গড়লেন সাকিব