বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

বেতনের ভাগ না দেয়ায় স্ত্রীকে খুন

বেতনের টাকার ভাগ না দেয়ায় সখিনা বেগম (৩০) নামের এক গার্মেন্টকর্মীকে হত্যা করেছে তার স্বামী।

শনিবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতলে সখিনার মৃত্যু হয়। জানিয়েছেন, ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই বাচ্চু মিয়া।

তিনি জানান, সখিনা বেগম একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। তার স্বামী হাবিবুর রহমান চাকরি করতেন একটি প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে। তারা রাজধানীর বনশ্রীর সি- ব্লকের ৫০১ নম্বর বাসায় ভাড়া থাকতেন। হাবিবের বাড়ি ভোলা জেলা সদরে।

নিহত সখিনার প্রতিবেশী আঞ্জুমনারা বেগম জানান, প্রতিদিনের মতো আজো বিকেলে সখিনার চাকরির টাকা নিয়ে হাবিবের সঙ্গে ঝগড়া হয়। এসময় সখিনাকে মারধর করেন স্বামী হাবিবুর রহমান। নির্যাতনের এক পর্যায়ে সখিনা বেগম সজ্ঞা হারিয়ে মাটিতে লুঠিয়ে পড়লে হাবিবুর বাসা থেকে পালিয়ে যান। পরে প্রতিবেশিরা সখিনাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। লাশ ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে আছে।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

মিরপুরে অজ্ঞান পার্টির কবলে কিশোর, খোয়ালো অটোরিকশা

রাজধানী মিরপুরের দিয়া বাড়িতে অজ্ঞান পার্টির কবলে পড়ে ব্যাটারি চালিতবিস্তারিত পড়ুন

নয়াপল্টনে র‍্যাবের অভিযানে অবৈধ ভিওআইপি সরঞ্জামাদিসহ আটক ১

রাজধানীর নয়াপল্টন এলাকায় ৬৩ নম্বর বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ বিটিআরসিরবিস্তারিত পড়ুন

গার্ডরুমে সহকর্মীর গুলিতে পুলিশ সদস্য নিহত

রাজধানীর গুলশান-বারিধারা ডিপ্লোম্যাটিক এলাকায় গুলশান থানার ক্ষেত্রাধিন ফিলিস্তিন দূতাবাসের সামনেরবিস্তারিত পড়ুন

  • বাংলাদেশ ব্যাংক ও দুদকের ৭২ কর্মকর্তার চাকরি ছাড়ায় নানা আলোচনা
  • রাজধানীর শিশু হাসপাতালে আগুন
  • বায়ু দূষণ: শীর্ষস্থানে বাংলাদেশ, দ্বিতীয় স্থানে পাকিস্তান
  • ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি, তাড়াহুড়োয় ভুল হয়ে গেছে: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী
  • রাজধানীতে হাতিরপুলের আগুন নিয়ন্ত্রণে
  • হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরলেন খালেদা জিয়া
  • রাস্তায় ইফতার করলেন ডিএমপি কমিশনার
  • অবশেষে ডিএনএ পরীক্ষায় জানা গেল অভিশ্রুতি নাকি বৃষ্টি
  • তিন অপহরণকারী আটক, অপহৃত শিশু উদ্ধার !
  • ধর্ষণ করার আগে ছাত্রীটিকে দল বেঁধে মারধর করল
  • কখনো অঝর ধারায়, কখনো বা থেমে থেমে বৃষ্টি, ভোগান্তি সারাদিন
  • অধরা সিদ্দিকুরের দুর্দশায় দায়ী পুলিশরা