রবিবার, এপ্রিল ২১, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

যুবদলের কর্মীকে ডেকে নিয়ে হত্যা করেছে যুবলীগ

চট্টগ্রামে ডিশ ব্যবসায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে যুবলীগ কর্মীরা গলা কেটে এক যুবদল কর্মীকে হত্যা করেছে। শুক্রবার দুপুরে নগরীর পাহাড়তলী থানার মুরগির ফার্ম এলাকার ঘর থেকে ডেকে এনে একটি পুকুর পাড়ে প্রকাশ্যে ওই যুবদল কর্মীকে হত্যা করা হয়।

নিহত যুবদল কর্মীর নাম সাইদুল ইসলাম। সাইদুল ওই এলাকার আরবান আলী মাঝির বাড়ির সেলিম মিয়ার ছেলে। তিনি পেশায় ক্যাবল অপারেটর ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে হরতাল-অবরোধে নগরীর বিভিন্ন থানায় নাশকতার অভিযোগে ৭টি মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, ডিশ ব্যবসায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সোহেল নামে এক যুবলীগ কর্মীর সঙ্গে সাইদুলের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। এ বিরোধের জের ধরে শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টায় সোহেল তার অনুসারী দুই যুবককে পাঠিয়ে সাইদুলকে ঘর থেকে ডেকে আনে। আলমতারা পুকুর পাড়ে নিয়ে যাওয়ার পর পূর্ব থেকে ওই স্থানে থাকা সোহেল তাকে কিল-ঘুষি মারতে থাকে।

একপর্যায়ে সাইদুলকে ডেকে আনা ওই দুই যুবক তার হাত-পা চেপে ধরে এবং সোহেল যুবদল কর্মী সাইদুলের গলায় ছুরি চালিয়ে দেয়। তার বুকেও এলোপাতাড়ি কয়েকটি ছুরিকাঘাত করা হয়। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন এবং স্থানীয়রা এসে সাইদুলকে ম–মূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত সাইদুলের বড় বোন ইয়াসমিন আকতার বলেন, জুমার নামাজ পড়তে মসজিদে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন সাইদুল। দুপুর ১২টা ২০ মিনিটের দিকে এলাকার পরিচিত দু’জন লোক তাকে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে যায়।

যাওয়ার মাত্র ১০ মিনিট পর খবর আসে আলমতারা পুকুর পাড়ে সাইদুলকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। তিনি ও পরিবারের অন্য সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে সাইদুলকে রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেন। তখনও সাইদুল কথা বলতে পারছিল।

ইয়াসমিন আকতার আরও জানান, সাইদুল তাদের বলেছেন মিয়া সওদাগরের ছেলে সোহেল তাকে ছুরি মেরে পালিয়ে গেছে। রক্তাক্ত অবস্থায় মাটি থেকে উদ্ধার করে সাইদুলকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তাররা মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও বলেন, সাইদুল যুবদলের কর্মী ছিলেন। তার ডিশ ব্যবসা কেড়ে নেয়ার জন্যই যুবলীগ কর্মী সোহেল সাইদুলকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে দিয়েছে। তিনি ভাই হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পাহাড়তলী থানার এসআই তপন কান্তি মল্লিক বলেন, পূর্বশত্র“তার জের ধরে সাইদুলকে বাড়ির সামনে পুকুর পাড়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

তবে কি কারণে কারা তাকে খুন করেছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তিনি জানান, সুরতহালে দেখা গেছে সাইদুলের গলায় যে আঘাতটি করা হয়েছে সেটি গলার হাড় পর্যন্ত কেটে গেছে। এছাড়া তার বুকেও কয়েকটি ছুরিকাঘাত করা হয়।

পাহাড়তলী থানার ওসি একেএম আজিজুর রহমান বলেন, নিহত সাইদুলের হত্যাকারীদের গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে। কি কারণে তাকে খুন করা হয়েছে সেটি এখনও স্পষ্ট নয়।

কেউ কেউ ডিশ ব্যবসাকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানালেও যারা মারছে বলে অভিযোগ আসছে খবর নিয়ে জানা গেছে তারা কেউ ডিশ ব্যবসা করে না। অন্য কোনো কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে। অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা গেলে বিষয়টি স্পষ্ট হবে।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

চট্টগ্রামে চিনির গুদামে আগুন- ১৭ ঘণ্টা পরও পুরোপুরি নেভেনি

গতকাল (৪ মার্চ) বিকালে চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলার ঈসানগর এলাকায় অবস্থিতবিস্তারিত পড়ুন

পাল্টাপাল্টি অবস্থানে ছাত্রলীগ চবিতে

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শিক্ষক আমীর উদ্দিনকে অপসারণ ও লাঞ্ছনার বিষয়েবিস্তারিত পড়ুন

ঋণের বোঝা নিয়ে দম্পতির ‘আত্মহত্যা’

মন্দিরের পাশেই কুঁড়েঘরে থাকতেন পুরোহিত স্বপন দে ও তাঁর স্ত্রীবিস্তারিত পড়ুন

  • আজ খুলে দেয়া হচ্ছে চট্রগ্রামের আখতারুজ্জামান চৌধুরী ফ্লাইওভার
  • চট্টগ্রামে মিনিবাস উল্টে নিহত ২
  • চট্টগ্রামে মন্দিরে হামলা-অগ্নিসংযোগ, সড়ক অবরোধ
  • ক্রিকেট নিয়ে মারামারি: আহত স্কুলছাত্রের মৃত্যু
  • নারী আইনজীবীর নাক ফাটিয়ে দিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা
  • চট্টগ্রামে ৬ ঘন্টার বৃষ্টিতে লাখো মানুষ পানিবন্দি
  • চট্টগ্রামে ইয়াবাসহ ২ পুলিশ কনস্টেবল গ্রেপ্তার
  • অ্যাম্বুলেন্সে থাকা পাকিস্তানের পতাকা ছিঁড়ে ফেললো চবি ছাত্রলীগ
  • সন্দ্বীপে নৌকাডুবি, ৪ লাশ উদ্ধার
  • ‘পুলিশ মেরে বেহেশতে যেতে চায় জঙ্গিরা’
  • ট্রেনে কাটা পড়ে দুইজনের মর্মান্তিক মৃত্যু
  • সীতাকুণ্ডে জঙ্গি আস্তানা : চার মামলা পুলিশের