শনিবার, জুন ২২, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

রাজন হত্যা: সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ, যুক্তিতর্ক আগামী ২৫ অক্টোবর

সিলেটে শিশু শেখ সামিউল আলম রাজন হত্যা মামলার প্রধান আসামি কামরুল ইসলামকে গতকাল রবিবার আদালতে আনা হবে এটা আগে থেকেই নির্ধারিত ছিল। তাই সকাল থেকেই আদালতপাড়া ছিল লোকে লোকারণ্য।

দুপুরে যখন কামরুলকে আদালতে নেওয়া হয় তখন আদালত প্রাঙ্গণে বিক্ষোভ করে শত শত মানুষ। এ সময় তারা কামরুলের ফাঁসির দাবিতে স্লোগান দিতে থাকে। অনেকে কামরুলকে জুতাও প্রদর্শন করে। এ সময় কামরুল মাথা নিচু করে থাকে। পুলিশ ভিড় ঠেলে কামরুলকে আদালতের এজলাসে নিয়ে যায়।

এদিকে গতকাল মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার সাক্ষ্যগ্রহণের মধ্য দিয়ে মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ পর্ব শেষ হয়েছে। তবে আদালতে এর আগে দেওয়া সাক্ষীদের পুনরায় নিজের উপস্থিতিতে সাক্ষ্যগ্রহণের আবেদন জানিয়েছেন কামরুল। অবশ্য বিকেলে শুনানি শেষে বিচারক কামরুলের এ আবেদন নাকচ করে দেন। একই সঙ্গে আগামীকাল মঙ্গলবার ৩৪২ ধারায় আসামিদের পরীক্ষা এবং ২৫ অক্টোবর মামলার যুক্তিতর্কের জন্য দিন ধার্য করা হয়েছে।

দুপুর পৌনে ১২টার দিকে কামরুলসহ ১১ আসামিকে সিলেট মহানগর দায়রা জজ আকবর হোসেন মৃধার আদালতে হাজির করা হয়। এরপর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক সুরঞ্জিত তালুকদার সাক্ষ্য দেন। অভিযোগপত্রে ৩৮ জন সাক্ষী থাকলেও দুজন আদালতে না আসায় গতকালই সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ করা হয়।

সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ, যুক্তিতর্ক আগামী ২৫ অক্টোবর

রাজন হত্যাকাণ্ডের পর অন্যতম প্রধান অভিযুক্ত কামরুল ইসলাম সৌদি আরব পালিয়ে যান। সেখানে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সহযোগিতায় কামরুলকে আটক করা হয়। পরে ইন্টারপোলের মাধ্যমে গত বৃহস্পতিবার কামরুলকে দেশে নিয়ে আসা হয়। এরপর শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয় তাঁকে। গতকাল প্রথমবারের মতো মামলার নির্ধারিত তারিখে আদালতে হাজির করা হয় কামরুলকে।

সকাল ৯টায় সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে কামরুলসহ অন্য আসামিদের কড়া নিরাপত্তায় আদালতপাড়ায় নিয়ে আসা হয়। দুপুর পৌনে ১২টার দিকে কোর্ট হাজত থেকে কামরুলকে নিয়ে আদালতের এজলাসের দিকে রওনা হয় পুলিশ। এ সময় আদালত চত্বরে জড়ো হওয়া বিক্ষুব্ধ জনতা ফাঁসি ফাঁসি বলে স্লোগান শুরু করে। অনেকে কামরুলের দিকে তেড়েও যায়। তবে কড়া নিরাপত্তার কারণে কামরুলের কাছাকাছি পৌঁছতে পারেনি জনতার বিক্ষোভ। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতার অনেকে কামরুলকে জুতা প্রদর্শন করে।

রাজনের বাবা শেখ আজিজুর রহমানের নিযুক্ত আইনজীবী এমাদউল্লাহ শহিদুল ইসলাম শাহিন জানান, সাক্ষীদের সাক্ষ্য দেওয়ার সময় আসামি কামরুল দেশের বাইরে ছিলেন। সে কারণে তিনি আইনজীবী নিয়োগ করতে পারেননি। গতকাল তাঁর পক্ষে আইনজীবী নিয়োগ করে পুনরায় সব সাক্ষীর সাক্ষ্য শোনার জন্য আদালতের কাছে আবেদন করা হয়। সন্ধ্যা ৬টার দিকে কামরুলের এ আবেদনের ওপর শুনানি শুরু হয়। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত কামরুলের আবেদন নামঞ্জুর করেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী এমাদউল্লাহ শহিদুল ইসলাম শাহিন জানান, কামরুল উপস্থিত না থাকলেও যেহেতু তাঁর পক্ষে একজন সরকার নিযুক্ত আইনজীবী ছিলেন এবং নতুন করে ৩৫ জন সাক্ষীকে পুনরায় আদালতে আনা কোনোভাবেই সমীচীন হবে না, তাই কামরুলের আবেদন নামঞ্জুর করা হয়েছে। মহানগর দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট মফুর আলী জানান, আগামীকাল আসামিদের পরীক্ষা করা হবে। এ ছাড়া ২৫ অক্টোবর যুক্তিতর্কের জন্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

সিলেট বিভাগের বন্যা ভয়ঙ্কর রুপ নিচ্ছে

গত কয়েকদিনের অবিরত হালকা ও ভারী বর্ষণ, পাহাড়ি এবং ভারতবিস্তারিত পড়ুন

অনাবৃষ্টি, তীব্র রোদে সংকটে সিলেটের চা-বাগানগুলো

অনাবৃষ্টি, তীব্র রোদে সংকটে পড়েছে সিলেটের চা-বাগানগুলো। অতিরিক্ত গরমে ‘রেডবিস্তারিত পড়ুন

বানিয়াচং উপজেলায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে, ৩ জনে মৃত্যু

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে রণক্ষেত্রেবিস্তারিত পড়ুন

  • হবিগঞ্জে ট্রাক-প্রাইভেটকার সংঘর্ষে ৫ জন নিহত
  • মৌলভীবাজারে ২৯০ বস্তা ভারতীয় অবৈধ চিনি জব্দ
  • বাঁধ নির্মাণ শুরু হয়নি হাওরে, নীতিমালা বদলালেও
  • নিহতদের পাঁচজনই মাদ্রাসাছাত্র: পাথর তুলতে গিয়ে
  • সিলেটে বন্যার উন্নতি হলেও পিছু ছাড়ছে না দুর্ভোগ
  • সিলেটে দোকানে দোকানে পানি, ব্যবসায়ীদের মাথায় হাত
  • সিলেটে মৃদু ভূমিকম্প
  • সিলেটে ঢলের পানিতে শিশুসহ চার ও বজ্রপাতে একজনের মৃত্যু
  • ১০ ঘণ্টা পর সিলেটের পথে রেল চলাচল শুরু
  • সিরাজগঞ্জে ‘খাদ্যে বিষক্রিয়ায়’ মা-ছেলের মৃত্যু
  • ‘ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে’ গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা
  • মৌলভীবাজারে টয়লেট থেকে মোবাইল তুলতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু