সোমবার, এপ্রিল ১৫, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

চলছে হয়রানি ভূমি জরিপের নামে সাভারে

ঢাকার সাভারের দক্ষিণ বক্তারপুর মৌজায় সাড়ে চার শতাংশ জমির মালিক ব্যবসায়ী আবদুর রাজ্জাক। মালিকানাসংক্রান্ত সব কাগজপত্রও রয়েছে তাঁর। এরপরেও নানা অজুহাতে বিএস (বাংলাদেশ সার্ভে) জরিপে তাঁর মালিকানা নিশ্চিত করছে না জরিপসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

রাজ্জাক বলেন, আগের মালিকের কাছ থেকে ২০০৭ সালে তিনি ওই জমি ক্রয়ের পর নিজের নামে নামজারি করে নেন। এরপর থেকেই ওই জমির দখলে রয়েছেন তিনি। তারপরেও নানা অজুহাতে তাঁর মালিকানা নিশ্চিত করতে শতাংশপ্রতি ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন দক্ষিণ বক্তারপুর মৌজায় বিএস জরিপ কাজের সঙ্গে যুক্ত সার্ভেয়ার শামসুল আলম। শুধু ব্যবসায়ী রাজ্জাকই নন, দক্ষিণ বক্তারপুর ও পাশের কাঞ্চনপুর মৌজার হাজার খানেক লোক একই রকম হয়রানির শিকার হচ্ছেন। নানা অজুহাতে তাঁদের কাছ থেকে আদায় করা হচ্ছে হাজার হাজার টাকা।

সাভারের সহকারী সেটেলমেন্ট কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সাভারের বেশ কয়েকটি মৌজাসহ পৌর এলাকার দক্ষিণ বক্তারপুর ও কাঞ্চনপুর মৌজায়ও বিএস জরিপের কাজ চলছে। ইতিমধ্যে এলাকা দুটিতে মাঠ পর্যায়ে ডিজিটাল জরিপের কাজ সম্পন্ন করছে। এখন সার্ভেয়ারদের পাঁচটি দল দখল ও মালিকানাসংক্রান্ত কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে বাস্তবতার আলোকে রেকর্ডে জমির বর্তমান মালিকদের নাম তালিকাভুক্তির কাজ করছে।

গত সোমবার সরেজমিনে গেলে কথা হয় দক্ষিণ বক্তারপুরের সালাউদ্দিনের সঙ্গে। তাঁর বোন আর তিনি সাড়ে তিন শতাংশ করে সাত শতাংশ জমির মালিক। কিন্তু তাঁর দখলে রয়েছে চার শতাংশ। এই সামান্য কারণে বিএস রেকর্ডে সমহারে মালিকানা দেখাতে তাঁর কাছে ৩০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করা হয়েছে।
তিনি বলেন, সার্ভেয়ার আবু জাফরের সহকারী সর্দার আমিন ওবায়দুর রহমান তাঁর কাছে ওই পরিমাণ ঘুষ দাবি করেন। অনেক দর-কষাকষির পর তিনি ১০ হাজার টাকায় রফা করেন।

সাভার বাজারে ফুটপাতে বসে ডিম বিক্রি করেন দুলাল মিয়া। চার শতাংশ জমির জন্য তাঁকে দিতে হয়েছে চার হাজার টাকা। দুলাল বলেন, বিএস জরিপ শেষে তাঁর জমির মালিকানা নিশ্চিতের হাত পরচা দিতে তাঁকে নানাভাবে ঘোরানো হয়। পরে সার্ভেয়ার শামসুল আলমকে চার হাজার টাকা দিয়ে তিনি পরচা পান।
যোগাযোগ করা হলে শামসুল আলম বলেন, ‘আমরা মাঠ পর্যায়ে কাজ করি, আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকতেই পারে।

কিন্তু অভিযোগগুলো সত্য নয়।’জানতে চাইলে এসব অভিযোগ সম্পর্কে সাভারের সহকারী সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা আবু হাসান মো. গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘এলাকার টাউট-বাটপার চক্র প্রচণ্ডভাবে এসব করছে। এরা সাধারণ মানুষকে যেমনি হয়রানি করছে, তেমনি হয়রানি করছে জরিপসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদেরও। এরপরেও ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

বায়ু দূষণ: শীর্ষস্থানে বাংলাদেশ, দ্বিতীয় স্থানে পাকিস্তান

বায়ুদূষণ বিশ্বজুড়ে এক মহামারি আকার ধারণ করেছে। দক্ষিণ এশিয়ার তিনবিস্তারিত পড়ুন

ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি, তাড়াহুড়োয় ভুল হয়ে গেছে: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে খেজুরের দাম নির্ধারণ করে দেওয়ার বিজ্ঞপ্তিতে নিম্নমানেরবিস্তারিত পড়ুন

রাজধানীতে হাতিরপুলের আগুন নিয়ন্ত্রণে

রাজধানীর হাতিরপুলে কাঁচাবাজার সংলগ্ন ‘রাজ কমপ্লেক্স’ ভবনের দ্বিতীয় তলায় লাগাবিস্তারিত পড়ুন

  • হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরলেন খালেদা জিয়া
  • রাস্তায় ইফতার করলেন ডিএমপি কমিশনার
  • অবশেষে ডিএনএ পরীক্ষায় জানা গেল অভিশ্রুতি নাকি বৃষ্টি
  • তিন অপহরণকারী আটক, অপহৃত শিশু উদ্ধার !
  • ধর্ষণ করার আগে ছাত্রীটিকে দল বেঁধে মারধর করল
  • কখনো অঝর ধারায়, কখনো বা থেমে থেমে বৃষ্টি, ভোগান্তি সারাদিন
  • অধরা সিদ্দিকুরের দুর্দশায় দায়ী পুলিশরা
  • রাজধানীতে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আহত ২
  • মতিঝিলে জনতা টাওয়ারে আগুন
  • মিরপুর ও আশপাশের এলাকায় আজ ১০ ঘণ্টা গ্যাস থাকবে না
  • এই দুর্ভোগের শেষ কবে?
  • আশুলিয়ায় তুরাগ নদী থেকে তরুণীর লাশ উদ্ধার
  • Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *