শনিবার, জুলাই ১৩, ২০২৪

আমাদের কণ্ঠস্বর

প্রধান ম্যেনু

তারুণ্যের সংবাদ মাধ্যম

মুস্তাফিজের প্রশংসা করার ভাষা জানা নেই

রবীন্দ্রনাথ বলেছেন, আমার এই পথ-চাওয়াতেই আনন্দ। আমরা বলব, আমাদের রাত জাগাতেই আনন্দ। এ তো রাত জাগা নয়- আনন্দময় নিশি উদযাপন। ২০১৫ সালের ২১ জুন রাত ১১টা ১ মিনিট। বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে একটি ‘রেড লেটার ডে’- লাল অক্ষরে লেখা একটি দুর্লভ দিন। কালের গর্ভে এই দিনটি কখনও হারিয়ে যাবে না- ফুরিয়ে যাবে না। বাংলাদেশের মতো ‘তুচ্ছ-নগণ্য’ একটি দেশের কাছে ক্রিকেটের মহাপরাক্রমশালী রাজাধিরাজ ভারতের আত্মসমর্পণের করুণ দৃশ্যপট তো মনের মুকুর থেকে কখনোই হারিয়ে যেতে পারে না।

আমার এই লেখাটি কি খানিকটা আগাম হয়ে গেল? কালই তো ক্ষুধার্ত টাইগারদের মুখোমুখি হবে ম্লানমুখ, হতাশাগ্রস্ত, নতশির ধোনির ‘টিম ইন্ডিয়া’। এ লেখাটির জন্য ‘হোয়াইটওয়াশ’ কিংবা ‘চুনকামের’ অপেক্ষা করা সমীচীন ছিল। ক্রিকেটের প্রতি আমাদের ভালোবাসা, অনুরাগ বাংলাদেশের নগর-মহানগর থেকে নিভৃত গ্রামেও ছড়িয়ে পড়েছে। এর কোনো ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণ নিষ্প্রয়োজন। ‘প্রমোদে মন ঢেলে’ পাশাপাশি ক্রিকেটেও আমরা মন ও প্রাণ ঢেলে দিয়েছি।

‘বিস্ময় বালক’ । কী বিশেষণে তাকে আমরা বিশেষিত করব? অভিধানের তাবৎ বিশেষণেও ‘বিস্ময় বালকের’ প্রশংসা পরিপূর্ণ হবে বলে মনে হয় না। সাতক্ষীরার নিভৃত পল্লী থেকে তুলে আনা ১৯ বছরের এই সাদাসিধা, নিরীহ বালকটি ইংরেজি খুব একটা জানে না। ম্যাচ-পরবর্তী ‘উদযাপন’ অনুষ্ঠানে ক্রীড়া ভাষ্যকার শামীম চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে মুস্তাফিজ বলেছে, ‘আগামীতে আরও ভালো খেলব।’ এই যে ‘আরও ভালো খেলার’ প্রত্যয়- একজন ক্রিকেটারের জন্য সম্ভবত এটিই প্রথম ও শেষ কথা। আমরা আশা করব, মুস্তাফিজ আরও আরও ভালো খেলে আরও আরও উচ্চতায় নিয়ে যাবে ‘টিম বাংলাদেশ’কে।

ভারতের বিরুদ্ধে আমরা জয়লাভ করে সিরিজ জিতেছি এই আনন্দে আমরা ভুলে যেতে চাই প্রথম ম্যাচে মুস্তাফিজের প্রতি অধিনায়ক ধোনির অসহনশীল পীড়াদায়ক আচরণ। এমনকি ভারতের গণমাধ্যম ধোনির এই আচরণের সমালোচনাই করেছে। এ প্রসঙ্গের ইতি টেনে বলব, ধোনি আশা করি তার এই অমার্জনীয় ভুলের কথা মর্মে মর্মে উপলব্ধি করেছেন। আমি ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ নই। লাখো বাঙালির মতো রয়েছে ক্রিকেটের জন্য আমার অগাধ ভালোবাসা। টাইগাররা জিতলে আনন্দে আত্মহারা হই। হারলে শুধু মর্মাহত হই না- রেগে যাই। অনেক সময় ‘দেখিয়া শুনিয়া ক্ষেপিয়া’ গিয়ে গালমন্দ করতেও কসুর করি না।

এই যে রোববার ভারতকে আমরা হারালাম তার সব কৃতিত্বই যে মুস্তাফিজের, তা মনে করার সঙ্গত কারণ নেই। এর সবটুকু কৃতিত্ব ‘টিম বাংলাদেশে’র। সবাই এক আত্মা, এক প্রাণ হয়ে খেলেছেন। মুস্তাফিজ ছাড়াও চমৎকার দৃষ্টিনন্দন বোলিং করেছেন সাকিব, নাসির, তাসকিন ও অধিনায়ক মাশরাফি। যোগ্য ফিল্ডারকে যোগ্য স্থানে রেখে আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং সাজানোর দূরদর্শিতাও প্রদর্শন করেছেন মাশরাফি। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং- ত্রিমাত্রিক ছন্দময়তায়ই টাইগারদের জয়লাভ নিশ্চিত হয়েছে। যেসব ভারতীয় ক্রিকেট ভাষ্যকার আমাদের ক্রিকেটারদের প্রশংসায় যথেষ্ট কৃপণ, তারাও মাশরাফির অধিনায়কত্বের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। এও এক বিরল ঘটনা।

সে রাতে আর একটি মজার ঘটনা ঘটেছে বার্তাকক্ষে। সমকাল কর্মীরা কাজের সময় শান্ত পরিবেশ বজায় রাখতে অভ্যস্ত। রোববার রাত যত বাড়তে থাকল, বাংলাদেশের জয়লাভের সম্ভাবনা যখন ধ্রুবতারার মতো স্পষ্ট হয়ে উঠল, । টিভির সামনে জমতে থাকল ভিড়। পদমর্যাদার দূরত্ব কখন যে মুছে গেল কেউ জানল না। ভারতের একেকটি উইকেটের পতন ও টাইগারদের প্রতিটি চার-এ করতালিমুখর হয়ে উঠল । নিজের অজান্তেই সকলের আনন্দে শামিল হলাম আমিও।

বাংলাদেশ-ভারত ওয়ানডে ক্রিকেটের সময়সূচি সংবাদপত্রগুলোকে কম দুর্ভাবনায় ফেলেনি। বেশিরভাগ পত্রিকার প্রথম সংস্করণ ছাপা হয় রাত ১০টার মধ্যে। খেলা চলার কথা রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত। তা হলে কি খেলার অসমাপ্ত খবর দিয়ে প্রথম সংস্করণ দেশের দূরবর্তী এলাকায় পাঠাতে হবে? সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নিলাম- না, টাইগারদের বিশাল জয়ের খবরের ব্যানার শিরোনাম কী হবে তা নিয়েও আমরা কম টানাপড়েনে ছিলাম না। সূর্যরাগে ঝলমল এই বিজয় মুকুট- যথার্থ শিরোনামই খুঁজে খুঁজে আমরা ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলাম। আবেগের অনুষঙ্গী জুতসই শিরোনামটি খুঁজেই পাচ্ছিলাম না আমরা।

সর্বশেষ :খেলা দেখতে দেখতে চোখের সামনে ভেসে উঠছিল একজন আবেগপ্রবণ ক্রিকেটমনস্ক মানুষের মুখ- তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমরা যেন মানসচক্ষে দেখছি, প্রধানমন্ত্রী রাজনীতি, রাষ্ট্র পরিচালনার দুরূহ সব বিষয় সম্পূর্ণ ভুলে গিয়ে টেলিভিশনের সামনে বসে আছেন এবং রাত ১১টা ১ মিনিটে টাইগারদের জয়লাভের চূড়ান্ত মুহূর্তে চিৎকার করে বলছেন- সাবাস টাইগার, সাবাস বাংলাদেশ।

এই সংক্রান্ত আরো সংবাদ

মুস্তাফিজের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ওয়াসিম আকরাম

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে দুর্দান্ত বোলার মুস্তাফিজুর রহমান। কাটার, স্লোয়ারে প্রতিপক্ষের ব্যাটারদেরবিস্তারিত পড়ুন

দিয়াগো কস্তার বীরত্বে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল পর্তুগাল

অতিরিক্ত সময়ে পেনাল্টি পেয়েও ব্যর্থ হন দলের সেরা তারকা ক্রিস্তিয়ানোবিস্তারিত পড়ুন

শান্তর অধিনায়কত্ব নিয়ে বিসিবি যা ভাবছে

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে সব ফরম্যাটের জন্য বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব পানবিস্তারিত পড়ুন

  • চিলিকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা
  • প্রথমবার বিশ্বকাপের ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকা
  • অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে সেমিতে আফগানিস্তান
  • সেমিফাইনাল নিশ্চিতের মিশনে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে ইংল্যান্ড
  • আবারও বৃষ্টিতে বন্ধ বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ
  • বৃষ্টির পর অস্ট্রেলিয়া শিবিরে রিশাদের জোড়া আঘাত
  • টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ছক্কা হাঁকানোর তালিকায় সেরা দশে হৃদয়
  • টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইটএ বাংলাদেশের ম্যাচ
  • আফগানিস্তানকে বিশাল ব্যবধানে হারালো ওয়েষ্ট ইন্ডিজ
  • নেপালকে হারিয়ে সুপার এইটে বাংলাদেশ
  • অস্ট্রেলিয়ার জয়ে ইংল্যান্ড সুপার এইটে
  • বিশ্বকাপে একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে যে রেকর্ড গড়লেন সাকিব